কিডনির পাথর জমা পরিচিত একটি সমস্যা। এটি সাধারণত আকারে ছোট হয়ে থাকে। কিডনির ভিতরে কঠিন পদার্থ জমা হয়ে কিডনিতে পাথর হয়। সাধারণত খনিজ এবং অম্ল লবণ দিয়ে কিডনির পাথর তৈরি হয়। কিডনিতে বিভিন্ন কারণে পাথর হয়ে থাকে।

কিডনিতে পাথর জমলে যে কারও জন্য তা ক্ষতিকর হতে পারে। কিডনিতে পাথর হলে পিঠে কিংবা পাজরের দুইপাশে, তলপেটে ব্যথা হয়, প্রসাবের পরিমাণ বেশি থাকে, প্রসাবের সময় ব্যথা হয়, ইউররিনের রঙ গোলাপি, লাল, বাদামি কিংবা গাঢ় রঙের হয়। জ্বর এবং বমি বমি ভাবও হয়। এ কারণে কিডনির পাথর প্রতিরোধের চেষ্টা করা উচিত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রতিদিন সকালে খালি পেটে এক গ্লাস হালকা গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে কিডনিতে পাথর জমা প্রতিরোধ করা যায়। লেবুর রসে থাকা সাইট্রিক অ্যাসিড ক্যালসিয়ামজাত পাথরগুলিকে তৈরি হতে দেয় না।

এ ছাড়াও বড় আকারের পাথরগুলিকে সাইট্রিক অ্যাসিড ছোট টুকরাকে ভেঙে দিতে পারে। এতে পাথরগুলো সহজেই সরু মূত্রনালি দিয়ে বেরিয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। শুধু কিডনির পাথর প্রতিরোধই নয়। লেবুর রসে আরও নানা গুণ রয়েছে। লেবুর রস শক্তি বাড়ায়। ঘন ঘন সর্দি-কাশি দূর করতেও এটি কাযর্করী।

লেবু পানির সঙ্গে এক চামচ মধু মিশিয়ে নিয়মিত খেলে নাক বন্ধ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। লেবু পানি খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। এটি ওজনও কমায়। নিয়মিত লেবু পানি খেলে ভাইরাসজনিত সংক্রমণ প্রতিরোধ করা যায়। সেই সঙ্গে এটি ত্বক ও লিভার পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে।

Related Post