যুবরাজের আবার ভারতে আসার- ভারতের আপত্তির মুখে পাকিস্তান থেকে সৌদি আরব ফিরে গিয়ে নয়াদিল্লি সফরে আসলেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।
গতকাল মঙ্গলবার একটি প্রতিনিধি দল নিয়ে নয়াদিল্লি আসেন যুবরাজ। আজ বুধবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। এই সময় বিনিয়োগ চুক্তিসহ সন্ত্রাসবাদ ইস্যু গুরুত্ব পাবে বলে কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে।

গত রবিবার পাকিস্তান সফরে আসেন যুবরাজ বিন সালমান। সেই সফর শেষ করে ভারতে আসার কথা ছিল। কিন্তু এতে আপত্তি জানায় ভারত। কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে- পাকিস্তান থেকে নয়, দেশে ফিরে গিয়ে যুবরাজকে ভারতে আসার কথা বলা হয়।

যুবরাজ ভারতের দাবি মেনে নিয়ে কয়েক ঘন্টার জন্য নিজ দেশে ফিরে যান। এরপর ভারতের উদ্দেশ্যে রিয়াদ ছাড়েন যুবরাজ। গতকাল রাতে নয়াদিল্লির বিমানবন্দরে যুবরাজ বিন সালমানকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী।

সম্প্রতি কাশ্মিরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় ৪০ জনের বেশি ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ায় ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। ধারণা করা হচ্ছে, সৌদি আরব দুই দেশের এই উত্তেজনা দূর করার বিষয়ে প্রস্তাব দিতে পারে। সৌদির পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়ের বলেছেন, উত্তেজনা হ্রাসে চেষ্টা চালাবে রিয়াদ।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অর্থনীতি বিষয়ক সচিব টিএস ত্রিমূর্তি জানিয়েছেন, যুবরাজের সফরে ভারত ও সৌদি আরবের মধ্যে বিনিয়োগ, পর্যটন, আবাসন এবং তথ্য ও সমপ্রচার বিষয়ে ৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে।

ভারতের ইচ্ছায় সৌদিতে ফিরে গিয়ে দিল্লি এলেন যুবরাজ বিন সালমান
তিনি জানান, সৌদি আরব ভারতের নেতৃত্বে সোলার অ্যালায়েন্সে যোগ দেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এছাড়া বিমান পরিবহন, নৌ বাহিনীর যৌথ অনুশীলন, সার, খাদ্য নিরাপত্তা ও অবকাঠামো বিষয়ে দুই দেশের মধ্যে আলোচনার কথা।

যুবরাজের সম্মানে আজ প্রধানমন্ত্রী মোদী হায়দ্রাবাদ হাউসে দুপুরের খাবারের আয়োজন করেছেন। রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গেও সাক্ষাতের কথা যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের।

Related Post

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •