২৮ ফেব্রুয়ারী শুরু হবে বাংলাদেশ এবং নিউজিল্যান্ডের প্রথম টেস্ট ম্যাচ। সেই ম্যাচের আগে নিজেদের ঝালাই করে নিতে আজ এক প্রস্তুতি ম্যাচে নিউজিল্যান্ড একাদশের বিপক্ষে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ।

ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যাটিং প্রস্তুতিটা ভালই করে নিচ্ছে বাংলাদেশ। শুরুতে দারুণ ব্যাটিং করেছে তামিম এবং সাদমান। রান পেয়েছেন দুজনেই। ১১৩ রানের উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ৪৫ রান করে আউট হন। এরপর সাদমান আউট হন ৬৭ রান করে।

তিনে নেমে মুমিনুল আউট হন ২০ রান করে। তবে ব্যাট কথা বলে সৌম্য ও লিটনের। লিটন দাস ৬২ ও সৌম্য ৪১ রান করে সেচ্ছায় মাঠ ছাড়েন।

এরপর মাঠে নেমে ঝড়ো ব্যাটিং শুরু করেন মিরাজ ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৬০ বলে ৫৯ করে আউট হলেন । মিরাজ ৬৭ বলে ৫১ করে আউট হলেন ।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৬৬ রান ৩ উইকেটের বিনিময়ে ।

মাহমুদুল্লাহর ব্যাটিং তাণ্ডবে ৩০০ ছাড়াল বাংলাদেশ

প্রথম দিনের চা পানের বিরতির পর বাকি ব্যাটসম্যানদের খেলার সুযোগ করে দিতে লিটন ও সৌম্যর স্বেচ্ছা অবসরের পর ক্রিজে আসেন তারা। শুরু থেকেই আগ্রাসী মেজাজে ব্যাট করে দ্রুত রান তুলতে থাকেন রিয়াদ। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিতে থাকেন মিরাজও। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ একাদশের রানসংখ্যা ৩ উইকেটের বিনিময়ে ৩০৩ রান। রিয়াদ ৪ চার ও ১ ছক্কায় ৩৫ রান নিয়ে ও মিরাজ ২ চার ও ১ ছক্কায় ২১ রান নিয়ে এ মুহূর্তে ক্রিজে অপরাজিত আছেন।

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্তের পর উদ্বোধনী জুটিতে বাংলাদেশকে দারুণ সূচনা এনে দেন তামিম ও আসাদমান জুটি। দু’জনে মিলে যোগ করেন ১১৩ রান। সাদমান অর্ধশতক পূর্ণ করলেও মাইলফলকটি অধরা থেকে যায় তামিমের। মাত্র ৫ রানের আক্ষেপ নিয়ে ব্যক্তিগত ৪৫ রানে তিনি সাজঘরে ফিরলে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে সফরকারীদের।

এরপর মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতির পর আউট হয়ে যান সাদমানও। ৬৭ রানে তার ফিরে যাওয়ায় দলীয় ১২০ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এদিন সবাই ব্যাট হাতে নিজেদের মেলে ধরলেও মুমিনুল ফিরেন মাত্র ২০ রান করে। তার ফিরে যাওয়ার পর ক্রিজে যোগ দেন সৌম্য ও লিটন।

Related Post