বড় বিপদ থেকে বাঁচলো – ভারতে বিমানবাহিনীর প্রদর্শনী অনুষ্ঠানের পাশে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে তিন শতাধিক পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ভারতের বেঙ্গালুরুতে ঘটনা ঘটে। শনিবার দুপুরের দিকে ইয়লেহঙ্কা এয়ার বেসে বিমানবাহিনীর ‘অ্যারো ইন্ডিয়া ২০১৯’ শো চলাকালীন সময়ে হঠাৎ উৎসবের মেজাজ বদলে যায় আতঙ্কে।

অনুষ্ঠান স্থল থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে গাড়ি পার্কিং-এর জায়গায় হঠাৎ করেই আগুন লেগে যায়। ঘটনার পরই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় ফায়ার সার্ভিসের ১০ টি গাড়ি। ইতিমধ্যেই ওই আগুনকে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে বলে জানা গেছে।

তবে অগ্নিকাণ্ডের প্রকৃত কারণ জানা না গেলেও কর্মকর্তাদের ধারণা জ্বলন্ত সিগারেটের টুকরো থেকেই এলাকার শুকনো ঘাসে আগুন ধরে থাকতে পারে এবং পরে তা ক্রমশ চারিদিকে ছড়িয়ে পড়তে থাকে। অগ্নিকাণ্ডের পর ইয়লেহঙ্কার আকাশ কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে যায়। ওই গাড়ির চালকদের মধ্যেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ইয়লেহঙ্কা এয়ার বেসে দেশ-বিদেশের যে সমস্ত অতিথিরা এসেছিলেন তাদের মধ্যেও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। তবে এখনও পর্যন্ত কোন হতাহতের খবর নেই। কিন্তু ওই অগ্নিকাণ্ডের জেরে প্রায় কয়েকঘণ্টা বিমান প্রদর্শনী বন্ধ রাখা হয়।
ফায়ার সার্ভিসের ডিজিপি এম.এন.রেড্ডি জানান শুকনো ঘাস এবং ভারী বাতাশ থাকার কারণেই আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ভয়াবহ আগুনে মোটরসাইকেল এবং চার-চাকার গাড়ি ভস্মীভূত হয়ে যায়।

চার দিন আগেই ‘অ্যারো ইন্ডিয়া ২০১৯’ মহড়া শুরুর মুখে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে সূর্যকিরণ যুদ্ধবিমান। তাতে নিহত হয় এক পাইলট। ওই ঘটনার পর এবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল।

পুরানা ঢাকা থেকে কেমিক্যাল সরানোর অভিযান শুরু

পুরান ঢাকা থেকে কেমিক্যাল সরানোর অভিযান শুরু হয়েছে। আজ দুপুর ১টা ৪০ মিনিটের দিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের নেতৃত্বে চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ওয়াহেদ ম্যানসনের নিচে মজুদ গোডাউন থেকে এই উচ্ছেদ শুরু হয়।

এ সময় মেয়র বলেন, পুরানা ঢাকা থেকে সম্পূর্ণ কেমিক্যাল না সরানো পর্যন্ত এই উচ্ছেদ অভিযান চলবে। এ ব্যাপারে তিনি সংশ্লিষ্টদের সহযোগিতা চেয়েছেন।

সাঈদ খোকন বলেন, পুরান ঢাকার সব ধরনের কেমিক্যাল উচ্ছেদ অব্যাহত থাকবে। যদি এরপর কোনও বাড়ির মালিক কেমিক্যাল রাখেন, তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়া কারও বাড়িতে এ ধরনের কোনও গোডাউন থাকার তথ্য থাকলে আছে, তা জানাতে সিটি করপোরেশনের হটলাইনে ফোন করার অনুরোধ জানান মেয়র।

এর আগে সকালে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত চুড়িহাট্টা এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, পুরান ঢাকার চকবাজার থেকে অবৈধ কেমিক্যাল কারখানা সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে উদ্যোগ নিতে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দিয়েছেন।

Related Post