ভালবাসা যে মানে না কোন জাত, কোল, মান, ধর্ম, বর্ণ, তারই প্রমাণ দিলেন ইউরোপীয় দেশ হাঙ্গেরীর খ্রিষ্টান নাগরিক ডরিনা ও বালাদেশী যুবক হেলাল মাহমুদ। তারা একে অপরকে দীর্ঘদিন থেকে ভালবেসে আসছেন অবশেষে তাদের ভালবাসা বিবাহ বন্ধনে পরিণত হয়।

জানা যায়, সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার কুড়ারবাজার ইউনিয়নের বৈরাগীবাজার এলাকার খশির নতুন বাজার গ্রামের বিশিষ্ট বাউল শিল্পী এম এস মানিকের ছোট ভাই হেলাল মাহমুদ দীর্ঘদিন থেকে ইউরোপের দেশ স্পেনে বসবাস করছেন এবং একই দেশে হাঙ্গেরীর খ্রিষ্টান নাগরিক ডরিনাও বসবাস করতেন।

একই দেশে দুজন থাকায় তাদের মধ্যে সুসম্পর্ক তৈরি হয় এক পর্যায়ে হাঙ্গেরীর খ্রিষ্টান নাগরিক ডরিনা বাংলাদেশী যুবক হেলাল মাহমুদকে গভীর ভাবে ভালবেসে ফেলে। এমনকি হাঙ্গেরী তরুনী ডরিনা হেলালকে জীবন সঙ্গী করার জন্য তাহার পরিবারের সম্মতি নিয়ে নিজ ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন এবং তখন তার নাম রাখা হয় আয়েশা সিদ্দিকা।

ইসলাস ধর্ম গ্রহন করার পর স্পেনেই হেলাল মাহমুদ ও আয়েশার বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। বিয়ের পর তাদের ঘরে এক কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করে।

বিয়ের পর এ দম্পতি প্রথমবারের মত গত ২০ ফেব্রুয়ারী বাংলাদেশের সিলেটের গ্রামের বাড়ীতে আসেন। সেখানে তাকে শ্বশুড় বাড়ীর লোকজন শুভেচ্ছা জানান। পাশাপাশি যুক্তরাজ্যভিত্তিক সংঘঠন জেবিএফ কালচারাল এসোসিয়েশন ইউকে নেতৃবৃন্দরাও এ দম্পতিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন।

Related Post

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •