হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমানের ছেলে মশিউর রহমান মামুন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

হাতীবান্ধা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে বিপুল ভোটে ঘোড়া প্রতীকে নির্বাচিত হয়েছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মশিউর রহমান মামুন।

মশিউর রহমান মামুন রোববার রাতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী লিয়াকত হোসেন বাচ্চুকে পরাজিত করে ২৮ হাজার ৯১১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। বাবা-ছেলের জনপ্রতিনিধি হওয়া নিয়ে এলাকাজুড়ে আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। অনেকেই বলছেন বাবা ও ছেলের হাতেই হাতীবান্ধা পরিচালিত হবে।

ছাত্রনেতা মশিউর রহমান মামুন ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত হাতীবান্ধা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ঢাকা কলেজের ছাত্রকল্যাণ পরিষদের লালমনিরহাট জেলা সভাপতি।

২০১৯ সালে তিনি ঢাকা কলেজ থেকে এমবিএ পাস করেন। হাতীবান্ধা এসএস উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত হন। চার ভাই-এক বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়।

নবনির্বাচিত হাতীবান্ধা উপজেলা চেয়ারম্যান মশিউর রহমান মামুন বলেন, বাবার হাত ধরে আমার রাজনীতিতে প্রবেশ। আশা করি আমার নির্বাচনি ইশতেহার সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করবে।

টংভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আতিয়ার রহমান আতি বলেন, আজ আমার গর্বের বিষয় আমার ছেলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। তাই সবাইকে নিয়ে আগামী দিনে হাতীবান্ধার উন্নয়ন করতে চাই।

‘গুরুত্বপূর্ণ’ বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতারা

চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, আন্দোলন কর্মসূচি ঠিক করতে বৈঠকে বসেছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যরা। বৈঠকে কমিটির শীর্ষ নেতারা উপস্থিত রয়েছেন।

সোমবার বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে গণফোরাম সভাপতি ও জোটের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেনের মতিঝিলের চেম্বারে এ বৈঠক শুরু হয়।বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর লতিফুল বারী হামিম।

বৈঠকে ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জাসদ (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আব্দুল মঈন খান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরীসহ জোটটির স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যরা উপস্থিত রয়েছেন।

সূত্র জানায়, বৈঠকটা ‘হাইপ্রোফাইল’। এ বৈঠকে আগামীর আন্দোলন কর্মসূচি, ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচিত প্রার্থীর সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেয়াসহ সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে।বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলন করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।এর আগে বিকেল পৌনে ৪টা থেকে নেতারা মতিঝিলে আসতে শুরু করেন।

উপজেলা নির্বাচন: প্রথম ধাপে আওয়ামী লীগ ৫৫ উপজেলায় জয়ী

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রথম ধাপে ৭৮ উপজেলায় ভোট সম্পন্ন হয়েছে রোববার (১০ মার্চ)। এতে চেয়ারম্যান পদে ৫৫ উপজেলায় জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। এছাড়া, ১০ উপজেলায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী, ১৩ উপজেলায় জয় পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।ইসি সচিবালয় সূত্র জানায়, সোমবার (১১ মার্চ) বিকালে জয় পাওয়া প্রার্থীদের তথ্য ও ভোট পড়ার হার বিষয়ে বিস্তারিত নির্বাচন ভবনে সংবাদ সম্মেলন হতে পারে।

আওয়ামী লীগের জয়ীদের উল্লেখযোগ্যরা হলেন- রাজশাহী: গোদাগাড়ীতে জাহাঙ্গীর আলম, তানোরে লুৎফর হায়দার রশীদ ময়না, পুঠিয়ায় জিএম হিরা বাচ্চু, বাগমারায় অনিল কুমার সরকার, দুর্গাপুরে নজরুল ইসলাম ও চারঘাটে ফকরুল ইসলাম।

নাটোর: সিংড়া উপজেলায় শফিকুল ইসলাম শফিক, লালপুর উপজেলায় ইসাহাক আলী, বড়াইগ্রাম উপজেলায় ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী। কুড়িগ্রাম: সদরে আমান উদ্দিন আহমেদ মঞ্জু, ভুরুঙ্গামারীতে নুরন্নবী চৌধুরী খোকন, নাগেশ্বরীতে মোস্তফা জামান, উলিপুরে গোলাম হোসেন মন্টু, চিলমারীতে শওকত আলী সরকার।

জয়পুরহাট: সদরে এস এম সোলায়মান আলী, পাঁচবিবিতে মুনিরুল শহীদ মন্ডল, ক্ষেতলাল উপজেলায় মোস্তাকিম মন্ডল, কালাইয়ে মিনফুজুর রহমান মিলন। হবিগঞ্জ: লাখাইয়ে মুশফিউল আলম আজাদ, চুনারুঘাটে আব্দুল কাদির চৌধুরী।

সিরাজগঞ্জ: শাহজাদপুর উপজেলায় প্রফেসর আজাদ রহমান, চৌহালী উপজেলায় মো. ফারুক সরকার, রায়গঞ্জে ইমরুল হোসেন তালুকদার ইমন। বানিয়াচংয়ে আবুল কাশেম চৌধুরী, আজমিরীগঞ্জে মর্তুজা হাসান। সুনামগঞ্জ: সদরে খায়রুল হুদা চপল, তাহিরপুরে করুণা সিন্ধু বাবুল, ছাতকে ফজলুর রহমান, দোয়ারাবাজারে আব্দুর রহিম, শাল্লায় আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ

নীলফামারী: ডিমলায় তবিবুল ইসলাম, সৈয়দপুরে মোকছেদুল মোমিন, ডোমারে তোফায়েল আহমদ। পঞ্চগড়: সদরে আমিরুল ইসলাম, তেঁতুলিয়ায় কাজী মাহমুদুর রহমান ডাবলু, আটোয়ারীতে তৌহিদুল ইসলাম। জামালপুর: ইসলামপুরে জামান আব্দুন নাসের বাবুল। সিরাজগঞ্জ: শাহজাদপুরে আজাদ রহমান। লালমনিরহাট: পাটগ্রামে রুহুল আমিন বাবুল।

বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীরা : নাটোরের গুরুদাসপুরে আনোয়ার হোসেন, বাগাতিপাড়ায় অহিদুল ইসলাম পকুল। পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে আবদুল মালেক চিশতি। জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে আব্দুস সালাম আকন্দ। হবিগঞ্জ সদরে মোতাচ্ছিরুল ইসলাম, মাধবপুরে এসএম শাহজাহান, বাহুবলে সৈয়দ খলিলুর রহমান, নবীগঞ্জে ফজলুল হক সেলিম।

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুরে সফর আলী, দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ফারুক আহমদ, দিরাইয়ে মঞ্জুরুল আলম চৌধুরী, ধর্মপাশায় মোজাম্মেল হোসেন রোখন। কুড়িগ্রামের রাজারহাটে জাহিদ সোহরাওয়ার্দ্দী বাপ্পী ও রাজিবপুরে আকবর হোসেন হিরু।

লালমনিরহাট সদরে কামরুজ্জামান সুজন, কালীগঞ্জে মাহবুবুজ্জামান, পাটগ্রামে রুহুল আমিন বাবুল। জামালপুরের বকশীগঞ্জে আব্দুর রউফ তালুকদার। সিরাজগঞ্জের তাড়াশে অধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান মনি।

Related Post

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *