এম এ ইউসুফ, রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: দাবিকৃত যৌতুকের টাকা না পাওয়ায় নওগাঁর রাণীনগরে সাগরিকা (২৬) নামের এক সন্তানের জননীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী শাশুড়ির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ঐ গৃহবধুর শাশুড়িকে আজ বুধবার দুপুরে আটক করেছে রাণীনগর থানা পুলিশ।

নিহতের স্বজনরা জানান, উপজেলার মিরাট উত্তরপাড়া গ্রামের ইয়ার আলীর ছেলে শিবলুর সাথে গত ৫ বছর আগে পার্শ্ববর্তী আত্রাই উপজেলার বান্দাইখাড়া গ্রামের অসিম উদ্দিনের মেয়ে সাগরিকার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুকের নগদ ১ লক্ষ টাকা সহ আসবাবপত্র জামাইকে দেয় মেয়ের পরিবার। কিন্তু আরো টাকার দাবিতে স্বামী শিবলু ও তার মা প্রায় সাগরিকাকে দীর্ঘদিন ধরে চাপ দিয়ে আসছিল। মঙ্গলবার রাতে যৌতুক হিসেবে আরো টাকা আনতে সাগরিকাকে চাপ দেয় শিবলু। এ নিয়ে উভয়ের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে স্ত্রী সাগরিকাকে পিটাতে থাকে শিবলু। শারীরিক নির্যাতনের পর তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর গলায় ওড়না জড়িয়ে লাশ ঝুঁলিয়ে সাগরিকার পরিবার কে আত্মহত্যার খবর দেয় বলে অভিযোগ করেন নিহতের ভাই বাবলুর রহমান। নিহত গৃহবধুর দেড় বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

এ ব্যাপারে শহিদুল ইসলাম সহ স্থানীয় একাধিক লোকজন জানান, যৌতুকের কারনে প্রায় নির্যাতন করতো শিবলু। এ নিয়ে কয়েক দফা সালিশ করেও শিবলুকে সতর্ক করা হয়।

রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ এএসএম সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় গৃহবধুর শাশুড়ি শেফালী বেগম কে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সাগরিকার লাশ ময়নাতদন্ত করার জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাণীনগর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

Related Post

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *