রাজধানীর বসুন্ধরা গেট এলাকায় যে স্থানটিতে বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থীর আবরার আহমেদ চৌধুরী প্রাণ হারিয়েছিলেন, ঠিক সেখানেই তার নামে তৈরি হচ্ছে ফুটওভারব্রিজ। শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে দুর্ঘটনার একদিন পর আজ (২১ মার্চ) বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্রগতি সরণির সড়কে সেতুর কাজ শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন। সরেজমিনে দেখা গেছে, বাড্ডা প্রগতি সরণির সড়কে এখনও রক্তের দাগ শুকায়নি। সাদা রঙে আঁকা জেব্রা ক্রসিং এখনও আবরারের রক্তে লাল। ঘিরে রাখা হয়েছে জায়গাটি। এরই মধ্যে আশ্বাস অনুযায়ী ঘটনার দু’দিন পেরুতেই না পেরুতেই শুরু হয়েছে কাজ।

গত মঙ্গলবার সকালে সুপ্রভাত পরিবহণের বাসের চাপায় আবরার যেখানে নিহত হন, ঠিক তার কয়েক গজ দূরেই পথচারী সেতু নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে।পুরোদমে চলছে নির্মাণ কাজ। এজন্য বন্ধ রাখা হয়েছে জোয়ার সাহারা বাজারের দিকে যাওয়ার সড়কটি। সেখানে ওভারব্রিজের পাইলিংয়ের কাজ চলছে। এর আগে গতকাল বুধবার সকালে নিহত আবরারের বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আরিফ আহমেদ চৌধুরীর পক্ষে ওই ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। এসময় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

এসময় মেয়র জানান, ফুটওভারব্রিজটিরে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের জন্য আবরারের বাবা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আরিফ আহাম্মেদ চৌধুরীকে অনুরোধ করা হলেও তিনি আসতে পারেননি। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, যে বাসটি এই দুর্ঘটনা ঘটিয়েছে এরই মধ্যে বাসটির লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। চালক ও হেলপারকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলাও দায়ের করা হয়েছে। এই চালকের বিচার প্রক্রিয়া দ্রুততম সময়ে সম্পাদন করার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এই অপরাধের উপযুক্ত শাস্তি বিধান করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হবে।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *