‘মা, মা, ও মা আমি শেষ হয়ে গেলাম মা। মায়ের দোয়ার সব শেষ মা। কিচ্ছু নাই গো মা,আমার কিছু নাই মা’ দোকান পোড়ার কথাগুলো মাকে ফোনে এভাবেই কাঁদতে কাঁদতে জানাচ্ছিলেন দোকান মালিক জুলহাস মাহবুব।

শনিবার সকালে রাজধানীর গুলশান-১ এর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মার্কেটে লাগা আগুনে অন্যান্য অনেক দোকানের সঙ্গে পুড়ে গেছে মায়ের দোয়া বুনিয়াদি স্টোর নামে একটি দোকানও।

মার্কেটের ৬৭ নম্বর দোকানটি ছিল তার। মশলার আইটেমসহ পুরো দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে জুলহাসের।

জুলহাস বলেন, ‘আমার গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলায়। মা-বাবার জমি বিক্রির টাকায় এই দোকান করেছিলাম। ২৫ লাখ টাকার ওপরে মশলার আইটেম ছিল। সবই পুড়ে ছাই।’ বলতে বলতে আবারও হু হু করে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

একই অবস্থা মার্কেটের পুড়ে যাওয়া প্রায় সব দোকানির। আগুনের এই ঘটনায় ২৯১টি দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

আজ শনিবার সকাল পৌনে ৬টার দিকে এ আগুনের সূত্রপাত হয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট কাজ করে। এরপর সকাল পৌনে ১০টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার ঢাকার বনানীতে এফ আর টাওয়ারে আগুন লেগে ২৫ জনের প্রাণহানি হয়েছে। এ ঘটনায় দগ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন আরও ৭০ জন।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *