একদিন জম্মু-কাশ্মীর আলাদা প্রধানমন্ত্রী ও প্রেসিডেন্ট থাকবে বলে মন্তব্য করেছেন ভারতের ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লাহ। তবে এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

সোমবারের এক বৈঠকে কংগ্রেসের কাছে তাদের মিত্রের এ মন্তব্যের ব্যাখ্যা দাবি করেছেন তিনি। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ন্যাশনাল কনফারেন্সের সঙ্গে জোট বেঁধে জম্মু ও কাশ্মীরের সাতটি আসনে লড়ছে কংগ্রেস।

ওমর আবদুল্লাহর নাম মুখে না নিয়েই নরেন্দ্র মোদি বলেন, তিনি বলেছেন যে ঘড়ির কাঁটা পেছনে নিয়ে যাবেন। ঠিক ১৯৫৩ সালের আগের মতো অবস্থায়। এতে ভারতে দুজন প্রধানমন্ত্রী থাকবেন। কাশ্মীরে একজন আলাদা প্রধানমন্ত্রী থাকবেন।

হায়দারাবাদের এক নির্বাচনী সভায় ভারতের প্রধানমন্ত্রী মোদি বলেন, কংগ্রেসকে অবশ্যই জবাব দিতে হবে, তাদের মিত্র কীভাবে এমন কথা বলেন?

এর আগে দক্ষিণ কাশ্মীরের বান্দিপোরের এক নির্বাচনী শোভাযাত্রায় গিয়ে আবদুল্লাহ বলেন, যারা অনুচ্ছেদ ৩৫এ বাতিলের হুমকি দিচ্ছেন, তাদের জানা উচিত- জম্মু ও কাশ্মীর তাদের প্রধানমন্ত্রীর পদ ও সদর-ই-রিয়াসাত ফিরে পাবে।

তিনি বলেন, জম্মু ও কাশ্মীরের সংযুক্তির জন্য ১৯৪৭ সালে মহারাজা হরি সিং যে শর্তারোপ করেছিলেন তা পুনঃপ্রতিষ্ঠার জন্য আমার দল সবসময় প্রস্তুত আছে এবং কোনো দ্বিধা ছাড়াই আমরা এটি করে যাব।

মোদির বক্তব্যের পর টুইটারে আবদুল্লাহ বলেন, কংগ্রেস ও বিরোধী দলের প্রিয় বন্ধুরা, আজকে আমি যে বক্তব্য দিয়েছি, তা থেকে নিজেদের দূরত্ব বজায় রাখতে দ্বিধা করবেন না। কার্যত সেটি করেই মোদি ধাপ্পাবাজির সঠিক জবাব দেন।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *