‘লোকে বলে চৌকিদার চোর হ্যায়। আমি বলি না, আমি বলি, চৌকিদার ঝুটা হ্যায়’ এই ভাষায় বসিরহাটের মাথাভাঙার সভা থেকে নরেন্দ্র মোদির চৌকিদার ‘অবতার’কে কটাক্ষ করলেন মমতা ব্যানার্জী।

বুধবার রাজ্যে ভোটপ্রচারে এসে মমতাকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গতকালই দিনহাটার সভা থেকে মোদিকে ইস্যু ধরে ধরে পাল্টা জবাব দেন মমতা। বৃহস্পতিবারও মাথাভাঙার সভা থেকে মোদিকে চড়া সুরে আক্রমণ করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন মমতা কটাক্ষের সুরে বলেন ‘আগে চাওয়ালা ছিল, এখন চৌকিদার। পরে কাঁচাকলার দোকান খোলো! মোদিবাবু চাওয়ালা বলে সবার চাকরি খেয়ে নিয়েছে। নির্বাচনের নামে একেক জনের কাছ থেকে কোটি কোটি টাকা পাওয়া যাচ্ছে। ভোটের জন্য টাকা বিলোচ্ছে বিজেপি।

তিনি বলেন, ৫ বছর আগে ক্ষমতায় আসার সময় নিজেকে বলেছিলেন চাওয়ালা। আর এখন বলছে আমি চৌকিদার। আর লোকে তো বলছে চৌকিদার চোর হ্যায়। আমি বলছি, চৌকিদার ঝুটা হ্যায়। মিথ্যা কথা ছাড়া একটাও সত্যি কথা বলছে না। এখন কেটলিও নাই, চাও নেই, চিনিও নেই। ভাঁওতা সবাই বুঝতে পেরে গিয়েছে।

মমতা বলেন, নরেন্দ্র মোদি মোহাম্মদ বিন তুঘলকের ঠাকুরদা, হিটলারের জ্যাঠামশাই। হঠাৎ নোটবাতিল করে দিলেন, হঠাৎ মনে হল জিএসটি করে দিলেন, হঠাৎ মনে হল উনি চৌকিদার হবেন, হঠাৎ মনে হল উনি টিভি চ্যানেল করে ফেললেন, হঠাৎ মনে হল উনি রাজা হয়ে গেলেন, হঠাৎ মনে হল নেহরু কোট নিজের নামে চালালেন।

তিনি বলেন, নিজের নামে জামাকাপড় বিক্রি করছেন। নিজের নামে সিনেমা বানিয়ে ফেললেন। লোকে কেন তোমার সিনেমা দেখবে ভাই? তুমি কে? আসলে কী জানেন তো, খরগোশ কখনও কখনও নিজের মুখ লুকিয়ে থাকে, যাতে চেহারা না দেখা যায়।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *