বরগুনার তালতলীতে ছোটবগী পিকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গ্রেড ভীম ভেঙ্গে তৃতীয় শ্রেনীর শিক্ষার্থী মানসুরা (৮) নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন, আরও ৩ শিক্ষার্থী।

ভিডিও দেখুন:

বিদ্যালয়ের গ্রেড ভীম ভেঙ্গে তৃতীয় শ্রেনীর শিক্ষার্থী নিহত ও আহত ৫

বিদ্যালয়ের গ্রেড ভীম ভেঙ্গে তৃতীয় শ্রেনীর শিক্ষার্থী নিহত ও আহত ৫স্থানঃ বরগুনা তালতলী ছোটবগী

Posted by Atn24online.com on Saturday, April 6, 2019

শনিবার (৬ এপ্রিল) বেলা সাড়ে বারোটার দিকে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। নিহত মানসুরার বাবার নাম নজির হোসেন তালুকদার। বাড়ি তালতলী উপজেলার পচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের গেন্ডামারা গ্রামে।

পিকে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক জাকির হোসেন চুন্নু জানিয়েছেন, তিন কক্ষের একতলা বিদ্যালয় ভবনটি ২০০২ সালে নির্মান করা হয়। ভবনটি নির্মান করেন, বরগুনা-১ আসনের সাবেক জাতীয় সংসদ সদস্য মতিয়ার রহমান তালুকদারের ভাগ্নে সেতু এন্টারপ্রাইজের মালিক আবদুল্লাহ আল মামুন। ভবনটি নির্মানের এক বছরের মধ্যেই গ্রেড ভীমে ফাটল ধরেছিলো। শনিবার ক্লাস চলাকালে বেলা সাড়ে বারোটার দিকে গ্রেড ভীম ভেঙ্গে ৫ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী মানসুরাকে হাসপাতালে নেয়ার আগেই মারা যায়। রুমা আক্তার, ইসমাইল হোসেনসহ আহত ৩ শিক্ষার্থীকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন, নিহত মানসুরার মরদেহ আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে। আহতরাও ভর্তি আছেন, তবে তারা অনেকটা আশংকামুক্ত।

ভবনটি নির্মাণের এক বছরের মধ্যেই গ্রেড ভীমে ফাটল ধরেছিলো। শনিবার ক্লাস চলাকালে বেলা সাড়ে বারোটার দিকে গ্রেড ভীম ভেঙ্গে ১০ জন শিক্ষার্থী আহত হয়। মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী মানসুরা বেগমকে হাসপাতালে নেয়ার আগেই মারা যায়। রুমা আক্তার, ইসমাইল হোসেনসহ আহত ৩ শিক্ষার্থীকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা সাকেরীন জাহান জানান, তার শাশুরীর অসুস্থতার কারনে তিনি ছুটিতে ছিলেন। ভিম ধ্বসে শিক্ষার্থী আহত হওয়ার খবর পেয়ে আহত শিক্ষার্থীদের হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানিয়েছেন, নিহত মানসুরার লাশ আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে। আহতরাও ভর্তি আছেন, তবে তারা অনেকটা আশংকামুক্ত।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *