সিরিয়ার রাক্কায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলা ও স্থল অভিযানে এখন পর্যন্ত অন্তত এক হাজার ৬০০ জন বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো।
ব্রিটিশ মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ও পর্যবেক্ষণ সংস্থা এয়ারওয়াস প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।
সংস্থাগুলো জানায়, তারা তদন্তের মাধ্যমে ২০০ স্থানে বিমান হামলা এবং এক হাজার নিহতের পরিচয় জানতে পেরেছে।

২০১১ সালে রাক্কাকে রাজধানী ঘোষণার পর সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বিরুদ্ধে ‘জিহাদ’ শুরু করে আইএস।
গোষ্ঠীটির নতুন নামকরণ করা হয় ইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দি লেভান্ট (সিরিয়া)। একসময় ইরাক-সিরিয়ার ৮৮ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নেয় জঙ্গিগোষ্ঠীটি। তাদের খেলাফতের অধীন হয়ে পড়ে প্রায় এক কোটি মানুষ।
তবে মার্কিন ও রুশ বাহিনীর বিমান হামলার পাশাপাশি ইরাক এবং সিরিয়ায় বিভিন্ন বাহিনী প্রতিরোধ গড়ে তোলে। এতে খেলাফত সংকুচিত হয়ে তারা সিরিয়ার ইউফ্রেটিস নদীর এক বাঁকে সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে।

এর মাঝেই মার্কিন বিমান হামলায় বিপুলসংখ্যক বেসামরিক নিহত হয়েছেন বলে জানায় সংস্থা দুটি।
তবে মার্কিন জোটের দাবি, এই অভিযানে হতাহতের সংখ্যা মাত্র ১৮০ জন। তাদের দাবি, তারা বেসামরিকদের সুরক্ষার ব্যাপারে যথেষ্ট সচেতন।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *