বঙ্গোপসাগরের দক্ষিণ-পশ্চিম এলাকায় তৈরি নিম্নচাপ ঘূর্ণাবর্তের কারণে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। ‘ফেনি’ নামের এ ঝড় ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হচ্ছে। ফলে এটি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের গাঙ্গেয় এলাকায় আছড়ে পড়তে পারে বলে জানিয়েছে দেশটির কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তর।
বলা হচ্ছে, ঘূর্ণিঝড় ফেনির প্রভাবে ২৮ এপ্রিল নাগাদ দক্ষিণ ভারতে ঝড়-বৃষ্টি হতে পারে। কিন্তু একই সময় বঙ্গোপসাগরের অন্যদিকে প্রচণ্ড গরম পড়বে। যদিও ২৫ এপ্রিল থেকে ১ মে পর্যন্ত ফেনির প্রভাব থাকবে।

মিয়ানমার থেকে তামিলনাড়ু উপকূল পর্যন্ত ঝড়ের কম-বেশি প্রভাব পড়বে। সমুদ্রপৃষ্ঠের ৩০ ডিগ্রি তাপমাত্রা এ ঝড়ের অনুঘটক হিসাবে কাজ করছে। এর ফলে শক্তিশালী রূপ নিয়ে ফেনি ১০০ কিলোমিটার গতিবেগে আছড়ে পড়তে পারে। এর সর্বোচ্চ গতিবেগ হতে পারে ১১৫ কিলোমিটার।
এদিকে বাংলাদেশের মতো ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও প্রচণ্ড গরম পড়ছে। এরইমধ্যেই ঘূর্ণিঝড় ফেনির বিষয়ে সতর্কতা এলো। তবে এর ফলে গরম কমছে না বলে উল্লেখ করা হয়েছে।
শুক্রবার দেশটির আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলোয় তীব্র গরম পড়বে। এ সব এলাকায় দিনের তাপমাত্রা দুই থেকে চার ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়তে পারে। এর মধ্যে কলকাতায় তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রিতে পৌঁছতে পারে।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *