নওগাঁয় হাইকোর্টের বিচারপতি পরিচয় দেয়া আনোয়ার হোসেন (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে জেলা ডিবি অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার ইকবাল হোসেন এ তথ্য জানান।
আটক আনোয়ার হোসেন দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার টাংগুয়া ধনেশপাড়া গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আনোয়ার হোসেন একজন রিকশচালক। তিনি নিজেকে হাইকোর্টের বিচারপতি শওকত হোসেন পরিচয় দেন। এরপর জেলার পোরশা উপজেলার জিআর মামলা নং ১১০/১৭ এর এজাহারভুক্ত আসামি তৌফিক রহমান শাহকে মুক্ত করে দেয়ার জন্য নওগাঁর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রেজাউল করিম চৌধুরী এবং অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাহাঙ্গীর আলমকে মোবাইল ফোনে চাপ দেন। দীর্ঘ ৫ মাস ধরে আনোয়ার হোসেন এই চাপ অব্যাহত রাখেন।

এ নিয়ে বিজ্ঞ বিচারকদের মধ্যে সংশয় সৃষ্টি হলে তারা বিষয়টি নওগাঁর পুলিশ সুপারকে অবহিত করেন। এ ব্যাপারে পুলিশ অনুসন্ধান শুরু করে। পুলিশ সুপারের নির্দেশে ডিবি পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান মোবাইল ট্র্যাকিং করে জানতে পারেন ওই মোবাইল নম্বরটি দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার টাংগুয়া ধনেশপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের। তিনি কোনো বিচারপতি নয়। বিচারপতির ভুয়া পরিচয় নিশ্চিত হয়ে নওগাঁ ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে আনোয়ার হোসেনকে বৃহস্পতিবার রাতে তার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।
সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রকিবুল আক্তার, ডিবির ওসি কেএম সামছুদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, তৌফিক রহমান শাহ গত ২০১৭ সালের ৭ অক্টোবর নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলায় সংঘটিত আতিবর রহমান হত্যাকাণ্ডের চার্জশিটভুক্ত আসামি।

Related Post

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *