ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে উত্তাল থাকা বঙ্গোপসাগরে জেলে ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (২ মে) দুপুরে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার সোনারচরসংলগ্ন গভীর দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে এ ঘটনা ঘটে।এ বিষয়ে চরমোন্তাজ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সুদেব হাওলাদার বলেন, ট্রলার ডুবির ঘটনা শুনেছি। আমরা ঘটনাস্থলে যাচ্ছি। জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় ফনির সর্তক সংকেত ও নিদের্শনা উপেক্ষা করে ১০ জন জেলে নিয়ে সকালে জামাল ফিশিং নামের একটি ট্রলার গভীর সমুদ্রে যায়। দুপুরে ট্রলারটি ডুবে যাওয়ার সংবাদ আসে। এদিকে এ খবরে ১০ জেলেকে উদ্ধারের জন্য অভিযান চলছে। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত দেখানো হয়েছে। তাছাড়া চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৬ নম্বর বিপদ সংকেত এবং কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এছাড়া ফণীর কারণে দেশের সব নদীবন্দরে নৌযান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আবহাওয়া বিভাগ জানায়, ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৭৪ কিলোমিটারের মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ১৬০ কিলোমিটার যা ঝড়ো হাওয়ার আকারে ১৮০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের কাছে সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ফণীর আঘাত বেশ মারাত্মক হতে পারে। ফণীর প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসও হতে পারে। ডুবে যেতে পারে নিম্নাঞ্চল।

Related Post

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave A Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *