কাক, তাও আবার ধবধবে সাদা! গোলাপি পা, ঠোঁট। রোজ কালো কাক দেখেই যাঁরা ধুত্তোর করেন, এমন বিরল কাক দর্শনে তাঁরাই ভিড় জমালেন।

অন্যান্য দিনের মতো রবিবারও সকালে দোকান খুলেছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদার রামকৃষ্ণ মাইতি। নন্দ মার্কেটে দোকানের বাইরে একটি নারকেল গাছের নীচে হঠাৎই চোখ যায় তাঁর। সাদা রঙের একটি পাখিকে দেখেই কৌতূহলী হয়ে এগিয়ে যান রামকৃষ্ণবাবু।

সাদা রঙের পাখিটি যে বাচ্চা, তা দেখেই বুঝতে পেরেছিলেন ওই ব্যবসায়ী। সম্ভবত নারকেল গাছের মাথায় থাকা বাসা থেকেই পড়ে গিয়েছে সে। কিন্তু গড়ন যে অবিকল কাকের মতোই! কিন্তু গায়ের রং ধবধবে সাদা।
দেরি না করে সেই কাককেই দোকানে তুলে আনেন রামকৃষ্ণবাবু। পরম যত্নে খেতে দেন জল বিস্কুট। খবর দেন বন দফতরে। ততক্ষণে সাদা কাক ধরা পড়ার খবর লোকমুখে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিড় জমতে শুরু করেছে রামকৃষ্ণবাবুর দোকানে। কাক নিয়ে হই হট্টগোলে তখন দোকানে ব্যবসা লাটে উঠেছে।

কাক দেখার ভিড় ক্রমশ বাড়তেই থাকে। কেউ মোবাইলে ছবি তুলছে, কেউ আবার টুক করে তুলে ফেলেছেন সেলফি! অনেকে আবার দেরি না করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে ফেলেছেন বিরল সাদা কাকের ছবি।
কিছুক্ষণের মধ্যেই বন দফতরের বেলদা অফিস থেকে একটি দল এসে পাখিটিকে উদ্ধার করে। বন দফতরের কর্মীরাও জানান, সেটি সাদা কাকই। বন দফতর আসার আগে পর্যন্ত অবশ্য সাদা কাকটিকে আগলে আগলে রেখেছিলেন রামকৃষ্ণবাবু।

Related Post