শুরুর স্পেলটা ঠিক মনের মতো করতে পারেননি অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। যে কারণে মাত্র দুই ওভার করেই ডেকে নেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে। বোলিংয়ে এসে প্রথম ওভারেই আঘাত হানেন এ ডানহাতি পেস বোলিং অলরাউন্ডার। জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে ইনিংসের পঞ্চম ওভারের পঞ্চম বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচে পরিণত করেন সাইফউদ্দিন। অফস্টাম্পের বাইরে পড়ে হালকা সুইংয়ে বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে ড্রাইভ করতে গিয়ে মুশফিকুর রহিমের হাতে ধরা পড়েন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক। আউট হওয়ার আগে ২ চারের মারে ১৮ বলে ১৪ রান করেন মাসাকাদজা।

শুরুতেই অধিনায়ক হ্যামিল্টন মাসাকাদজার উইকেট হারালেও চাপ সামলে উঠছিল সফরকারী জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় উইকেটে স্বাছন্দ্যেই রান তুলছিলেন ওপেনার সেফাস ঝুয়াও এবং অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেলর। তবে নিজের দ্বিতীয় ওভারেই ঝুয়াওকে ফিরিয়ে দিয়ে জুটি ভেঙেছেন অফস্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ। পঞ্চম ওভারেই মাসাকাদজার বিদায়ের পরে মাত্র ৪৩ বলে ৫২ রানের জুটি গড়ে ফেলেছিলেন ঝুয়াও এবং টেলর। দশম ওভারে বোলিং করতে এসে নিজের প্রথম ওভারে ১১ রান খরচ করে ফেলেন মিরাজ। দ্বিতীয় ওভারের ৫ বলেও দিয়ে ফেলেন সমান ১১ রান। তবে ওভারের শেষ বলেই কাজের কাজটি করে দেন এ তরুণ অফস্পিনার।

আগের বলেই সুইপ শটে বাউন্ডারি মারার পরের বলে বোলারের মাথার উপর দিয়ে ছক্কা মারতে চেয়েছিলেন ঝুয়াও। কিন্তু টাইমিংয়ে গড়বড় করে ফেলায় ধরা পড়েন লংঅফে দাঁড়ানো ফজলে রাব্বির হাতে। আউট হওয়ার আগে ১টি করে চার ও ছক্কার মারে ২০ রান করেন ঝুয়াও।
৭০ রানের মাথায় দ্বিতীয় উইকেটের পতনের পর শন উইলিয়ামসকে সাথে নিয়ে হাল ধরেছেন টেলর। তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের ৩৫তম ওয়ানডে হাফসেঞ্চুরি। তার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ইনিংসের ২১তম ওভারে দলীয় শতক পূরণ করেছেন জিম্বাবুয়ে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ : ১৪০/২ (২৮ ওভার) টেলর ৭০ ও উইলিয়ামস ২৯রান করে ব্যাট করছেন। মাসাকাদজা ১৪ রান করে সাইফুদ্দিনের বলে আউট হয়েছেন। জুহায়ো ২০ রান করে মিরাজের শিকার হয়েছেন।

Related Post