বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা মানুষ কক্সবাজারের রামু উপজেলার জিন্নাত আলী বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে গিয়েছিলেন। বুধবার সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে সেখানে যান তিনি। তার নিজ নির্বাচনী এলাকার এমপি সায়মুম সরোয়ার কমল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যবস্থা করেন। সংসদের নিজ কার্যালয়ের প্রধানমন্ত্রী তাকে সাক্ষাৎও দেন। এ সময় তার চিকিৎসার জন্য ৫ লাখ টাকা দেন প্রধানমন্ত্রী।
সেখান থেকে বেরিয়ে আসার পর সংসদের ক্যান্টিনে গেলে তার সঙ্গে ছবি তোলার জন্য ভিড় করেন মন্ত্রী-এমপিরা। সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও এমপি-মন্ত্রীদের সহকারী ও একান্ত সহকারীসহ নানা ধরনের ব্যক্তিরা তাকে ঘিরে ধরেন। ছবি তোলেন, সেলফি তোলেন। তবে সাধারণ লোকদের সঙ্গে ছবি তোলার সময় তিনি টাকা দাবি করলেও মন্ত্রী-এমপিদের সঙ্গে বিনা বাক্য ব্যয়ে ছবি তোলেন।
এদিন সংসদ অধিবেশন থাকায় সন্ধ্যায় অনেক লোকের সমাগম ছিল। লম্বা লোকটিতে দেখতে সংসদের প্রধান হুইপ আসম ফিরোজ, তথ্য ও যোগযোগ প্রতিমন্ত্রীসহ একাধিক মন্ত্রী এমপি ভিড় জমান। তার সঙ্গে ছবিও তোলেন।
পরে এমপি সায়মুম সরোয়ার কমল জাগো নিউজকে বলেন, ‘জিন্নাত আলী নানা রোগে ভুগছেন। চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে পাঁচ লাখ টাকা দিয়েছেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী তার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী তার উপযোগী করে একটি বাড়ি করে দেয়ারও আশ্বাস দিয়েছেন।’
তবে সাংবাদিকরা জিন্নাত আলীর ছবি নেয়ার জন্য দাঁড়াতে বললে টাকা দাবি করেন তিনি। সংসদের এক কর্মকর্তা ১০০ টাকা দিলেও তিনি ছবি তুলতে রাজি হননি। সবাই টাকা না দিলে ছবি তুলবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন।
এ সময় তিনি বলেন, ‘অনেক সাংবাদিক আমাকে নিয়ে নিউজ করে উপকৃত হয়েছেন। কিন্তু আমার কিছুই হয়নি!’

পরে ক্যান্টিন থেকে চলে যাওয়ার সময় তার ছবি নেয়া হয়।
জানা যায়, বিশ্বের সবচেয়ে এই লম্বা ব্যক্তি, তবে তার এই দৈর্ঘ্য মোটেও স্বাভাবিক নয়। হরমোনজনিত সমস্যায় আছেন বিপাকে। বর্তমানে তিনি চিকিৎসা নিচ্ছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে।
গিনেস রেকর্ড অনুযায়ী বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে দীর্ঘ ব্যক্তি হলেন মিশরের সুলতান কসেন। তার উচ্চতা ৮ ফুট ৩ ইঞ্চি। আর ২২ বছর বয়সী জিন্নাত আলীর উচ্চতা ৮ ফুট ৫ ইঞ্চি। ১২ বছর বয়সের পর থেকেই অস্বাভাবিকভাবে বাড়তে থাকেন তিনি। ফলে স্বাভাবিক কাজকর্ম থেকেও সরে আসতে হয় তাকে। লম্বা দেহটা নিয়ে খুব একটা স্বস্তিও বোধ করেন না তিনি।
অস্বাভাবিক উচ্চতার কারণে অসুবিধা হচ্ছে তার। ঘরে ঢোকা-বের হওয়ার মতো দৈনন্দিন কাজেই বেগ পেতে হচ্ছে জিন্নাতকে। তার বড় সমস্যা শারীরিক দুর্বলতা। দুই হাঁটুতে ব্যথা। শারীরিক গড়নের কারণে ক্ষুধার তীব্রতাও বেশি। হরমনের কারণে তার অস্বাভাবিক বৃদ্ধি হয়েছে এবং তা আরও বাড়ার সম্ভাবনা আছে।

Related Post

Spread the love
  • 849
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    849
    Shares