জিন্নাত আলী, কক্সবাজারের রামু উপজেলার বড়বিল গ্রামে আমির হামজা ও শাহফোরা বেগমের সন্তান। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে তিনি তৃতীয়। বয়স তার ২২ বছর। তার বর্তমান উচ্চতা ৮ ফুট ৬ ইঞ্চি। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের এন্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের অধ্যাপক মো. ফরিদ উদ্দিনের অধীনে চিকিৎসাধীন।
হাসপাতালের চারতলায় কেবিনে ভর্তি থাকা জিন্নাতের দেখাশোনা করছেন তার বড় ভাই ইলিয়াস।
বুধবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদ ভবনে এসেছিলেন জিন্নাত আলী। উদ্দেশ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করা। বর্তমানে শারীরিক বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন বলে জানা গেছে।
কক্সবাজার-৩ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য সাইমুর সরওয়ার কমল তাকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করানোর জন্য নিয়ে আসেন। সংসদে আসার সঙ্গে সঙ্গে চারদিকে হৈ চৈ পড়ে যায়। তিনি যেখানেই যাচ্ছিলেন অসংখ্য মানুষ তাকে ঘিরে ধরছিলেন। তাকে এক নজর দেখতে ভিড় করেন মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী, সংসদ সদস্যরাও। জিন্নাত আলী যখন সংসদ থেকে বের হয়ে যাচ্ছিলেন তখন সংসদে প্রবেশের গেটে তাকে মাথা নিচু করে বের হতে দেখা যায়। তার সঙ্গে ছবি তোলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক ও অনুপম শাহজাহান জয়।
শুধু তাই নয়, জিন্নাত যখন সংসদের ক্যান্টিনে যান তখন অন্যান্য দর্শণার্থীদের সঙ্গে সংসদ সদস্যরাও ভিড় করেন তাকে দেখার জন্য। এমনকি একটি ছবিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গেও দেখা গেছে জিন্নাতকে।সংসদের নিজ কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী তাকে সাক্ষাৎও দেন। এ সময় তার চিকিৎসার জন্য ৫ লাখ টাকা দেন প্রধানমন্ত্রী।
জিন্নাতের সঙ্গে ছবি তোলার পর জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, জিন্নাত একটু অসুস্থ। আমি তাকে কিছু আর্থিক সহায়তা করলাম। প্রধানমন্ত্রী তার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন।
প্রধানমন্ত্রী বিনামূলে জিন্নাতের চিকিৎসার নির্দেশনা দিয়েছেন। তার জন্য একটি বাড়ি করে দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
উল্লেখ্য, গিনেস রেকর্ড অনুযায়ী বর্তমানে বিশ্বে সবচেয়ে দীর্ঘ ব্যক্তি হলেন মিসরের সুলতান কসেন। তার উচ্চতা ৮ ফুট ৩ ইঞ্চি। আর ২২ বছর বয়সী জিন্নাত আলীর উচ্চতা ৮ ফুট ৬ ইঞ্চি

Related Post