মালিকের কবর ছেড়ে- ভালোবাসা ব্যাপারটা বড্ড অদ্ভুত। এর না আছে কোনো নির্দিষ্ট সীমারেখা, না আছে কোনো পরিমাপ। মানুষ, প্রকৃতি, প্রাণী-মানুষের ভালোবাসা জড়িয়ে আছে পৃথিবীর ছোট্ট ছোট্ট বালিকণা থেকে প্রকান্ড পাহাড়ের কোল জুড়েও।
আর সব মানুষদের মতো ভালোবাসা আছে তাদের মনেও। বিশেষ করে অবলা প্রাণীদের প্রতি তাদের ভালোবাসা যুগ যুগ ধরে লক্ষণীয়। এমনই একটি পোষা প্রাণী হলো বিড়াল। যা প্রায় প্রতিটি মানুষের ঘরেই আছে। বিড়াল প্রিয় মানুষ গুলো তাদের খুব আদর করে, যত্ন করে পুষে থাকেন।
কিন্তু এই ভালোবাসাবাসির খেলায় মৃত্যু আসে বড়ই নির্মম সত্য হয়ে। কারণ যিনি প্রাণীটি পুষেছেন আদর যত্ন করে সেই পোষা প্রাণীটি যদি মৃত্যু বরণ করে তাহলে মানুষটির মন খারাপ হয়। এমনকি দেখা যায় প্রানীটির মৃত্যুর কারণে খাওয়া দাওয়া বন্ধ করে দেন এমন অনেক ঘটনাই আছে।

তবে এবার যদি উল্টোভাবে চিন্তা করি মানে প্রাণীটি বেঁচে আছে কিন্তু মৃত্যুবরণ করেছেন সেই মানুষটি যিনি অনেক যত্ন করে প্রাণীটি পুষেছিলেন। তাহলে বিড়ালটি কি মানুষের মতো করবে। মানে সে কি কাঁদবে, সে কি মন খারাপ করবে। হয়তো করবে কিন্তু বোঝার কোন উপায় নাই। কারণ মানুষ ছাড়া কেউই কথা বলতে পারে না।
কিন্তু সেই পোষা প্রাণীদের এমন অনেক আচরণ আছে যে আচরণে বোঝা যায় যে তার মালিকের মৃত্যুর কারণে তার মন খারাপ হয়েছে।
সম্প্রতি এমনই একটি ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হলো ফেসবুকে। যে ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে তার মালিকের মৃত্যুর পর তাকে কবর দেওয়া হয়েছে। কিন্তু পোষা প্রাণীটিকে কিছুতেই কবর থেকে উঠানো যাচ্ছে না। মানে সে উঠতে চাচ্ছে না।
আর একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে যে সে তার মালিকের কবরের উপরই এখন শুয়ে থাকে সব সময়। কারণ সে মানতেই পারছে না যে তার মালিক আর নেই। তাই সে কবরটির উপরই শুয়ে থাকে তার মালিককে এক নজর দেখার আশায়।

Related Post

Spread the love
  • 1.1K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1.1K
    Shares