কোথায় ছিলেন এস আই টুটুল আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুর সময়?

প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর হাত ধরে বাংলাদেশের সঙ্গীত অঙ্গনে প্রবেশ করে তারকা খ্যাতি পেয়েছেন অনেকেই। সেই তালিকায় রয়েছেন এস আই টুটুল, শফিক তুহিন, পার্থ বড়ুয়া, হাসান আবিদুর রেজা জুয়েলসহ আরও অনেকেই। তাদের মধ্যে অ্যালবাম, প্লেব্যাক, স্টেজ শো করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছেন সঙ্গীতশিল্পী এস আই টুটুল। একসময় আইয়ুব বাচ্চুর এলআরবি ব্যান্ডে কী বোর্ড বাজাতেন এস আই টুটুল। এই ব্যান্ডে ব্যাকআপ ভোকাল হিসেবেও যুক্ত ছিলেন তিনি। ২০০৩ সালে এলআরবি ছেড়ে দেন টুটুল। নিজে গড়ে তুলেন ফেস টু ফেস নামে একটি আলাদা ব্যান্ড। ক্যারিয়ার গড়েন এককভাবে। সে থেকেই আইয়ুব বাচ্চুর সঙ্গে টুটুলের দূরত্ব বাড়ার অনেক গল্প ছড়িয়েছে দেশের সংগীতাঙ্গণে।

গত ১৮ অক্টোবর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান কিংবদন্তী সঙ্গীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। তার মৃত্যুর সময় পরিবারের সদস্য, কাছের মানুষজন, সংগীতাঙ্গণের সবাইকে দেখা গেলেও, দেখা মেলেনি এস আই টুটুলের। অনেকের মধ্যে প্রশ্ন জেগেছে, কোথায় আছে টুটুল, টুটুলকে কেন দেখা যায়নি আইয়ুব বাচ্চুর জানাযায়? এবার সেই প্রশ্নের উত্তর মিলেছে। সব দূর‍ত্ব ঘুচিয়ে, মুছিয়ে দিয়ে সব অভিমান, সম্পর্কের টানে টুটুল ফিরে এসেছে আইয়ুব বাচ্চুর স্টুডিও এবি কিচেনে। গতকাল ( ২৮ অক্টোবর) আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে মিলাদ অনুষ্ঠানে অংশ নেন এস আই টুটুল। পুরনো সব কাছের মানুষদের পেয়ে আবেগপ্রবণও হয়ে পড়েন তিনি। পরে সেখানে তিনি সব প্রশ্নের জবাব দেন।টুটুল বলেন, আইয়ুব বাচ্চুকে শুধু দেশে থাকা মানুষ নয়, দেশের বাহিরে থাকা মানুষরাও ভালোবাসে। একটা মানুষকে কতটা ভালোবাসলে আমেরিকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সে তার জানাযায় অংশ নেয়। আমি তার মৃত্যুর সময় আমেরিকায় ছিলাম। সেখানে আমি সেই জানাযায় অংশ গ্রহণ করি। আমি কয়েকদিন আগে দেশে ফিরেছি। ফিরেই তার পরিবারের সাথে দেখা করি।

তিনি আরও বলেন, বাচ্চু ভাইয়ের সাথে আমার কাজের দূরত্ব ছিল এটা সত্যি। কিন্তু মনের দূরত্ব কখনওই ছিল না। তার কাছে আমার সঙ্গীতের শিক্ষা, তার হাত ধরেই আমার এদেশের সংগীতাঙ্গণে প্রবেশ। তিনি আমার শিক্ষক, তিনি আমার বাবা সমতুল্য। বড় মগবাজারের কাজী অফিস লেনের বায়তুল কোরআন জামে মসজিদে আইয়ুব বাচ্চুর পরিবারের পক্ষ থেকে তার জন্য দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় পরিবারের সদস্য, এলআরবি ব্যান্ডের সদস্য, এলাকাবাসীসহ আরও উপস্থিত ছিলেন সঙ্গীত শিল্পী আসিফ আকবর, এস আই টুটুল, মেহেরিন, হাসান আবিদুর রেজা জুয়েল ও অভিনেতা-মডেল নোবেল।

(Visited 119 times, 1 visits today)

Related Post

You may also like...