প্রেমিকাকে উদ্দেশ্য করে সুসাইড নোট লিখে (ইবি) বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের আত্মহত্যা
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) এক ছাত্র প্রেমে ব্যর্থ হয়ে আত্মহত্যা করেছেন। মৃত সাইফুজ্জামান সায়েম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র ছিলেন।

মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে ক্যাম্পাস সংলগ্ন শেখপাড়া বাজারের বাসা থেকে সিলিং ফ্যানে ঝুলন্ত অবস্থায় পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। সাইফুজ্জামান ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার লস্করদিয়া ইউনিয়নের আজম খানের ছেলে।
পুলিশ জানায়, তার কক্ষ থেকে তিন পাতার একটি সুইসাইড নোট জব্দ করা হয়েছে। ওই নোটে লিখা রয়েছে, ‘‘বাবু তোমাকে অনেক ভালোবাসি, জীবনের প্রতিটি মোড়ে তোমাকে চাই, তুমি কোনোদিন হয়ত আমার হবে না, তোমাকে আমার থেকে কেউ কোনোদিন বেশি ভালোবাসতে পারবে না জেনে নিও।’’

স্থানীয় বিপুল নামের এক ব্যক্তি জানান, ‘মা মঞ্জিল’ নামক ওই ভবনের নিচতলার কক্ষে একাই থাকতেন সায়েম। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে তার সঙ্গে শেষ কথা হয়। বিকেলে তার কক্ষের কাছে গেলে ভিতর থেকে দরজা বন্ধ পাওয়া যায়। সে ঘুমিয়েছে ভেবে ডাকাডাকি না করে চলে যাই। পরে সন্ধ্যা পেরিয়ে রাত হলেও দরজা বন্ধ দেখে আমাদের সন্দেহ হয়।
রাতে দরজার নিচের ফাঁক দিয়ে সায়েমের ঝুলন্ত পা দেখতে পেয়ে চিৎকার করে সবাইকে ডাকতে থাকি। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান ও শৈলকুপা থানার ওসি আলমগির হোসেন এসে দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে সায়েমের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান। এসময় তার বিছানার উপর পড়ে থাকা ডায়েরিতে তিন পাতার একটি ‘সুইসাইড নোট’ পাওয়া যায়।
সায়েমের কয়েকজন সহপাঠীর বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, গত কয়েকদিন ধরে সায়েম বিষন্ন ছিল। জানা গেছে, ওই এলাকায় একটি মেয়ের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল।
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান বলেন, ‘ঘটনাটি অত্যন্ত বেদনাদায়ক। কোন শিক্ষার্থী যেনো তার জীবনে এ রকম কাজ না করে।’
শৈলকুপা থানার ওসি তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ওই ডায়রিতে লেখা চিরকুট দেখে প্রেমঘটিত কারণে সায়েম আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা চলছে।’

Related Post