ক্যামেরার সামনে একটি মুখ। সেই মুখটি মাটিতে থুবড়ে পড়ে রয়েছে। জঙ্গলের মাটি গাছের পাতা ও বিভিন্ন লতায় মোড়ানো। ক্যামেরার দিকে তাকিয়ে ছলছলে চোখে সেই মুখটি বলছে, আমরা ছত্তিশগড়ের দান্তেওয়াড়ায় নির্বাচন কভার করার জন্য এসেছিলাম। এখন জঙ্গলে। আমাদের সঙ্গে কয়েকজন সেনা ছিল।
‘আচমকাই চারপাশ থেকে ঘিরে ফেলল মাওবাদীরা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ভয়াবহ গোলাগুলি শুরু হলো। আমি মনে হয় বাঁচব না আর। বাঁচার সম্ভাবনা আর নেই বললেই চলে। মৃত্যু একদম কাছে এসে দাঁড়িয়েছে আমার। তবুও কেন জানি একটুও ভয় লাগছে না।’

‘মা, এই ভিডিওটা আমি তোমার জন্য বানিয়ে রাখলাম। আমি হয়তো বাঁচব না আর। তবু একটা কথা বলতে চাই, আমি তোমাকে খুব ভালোবাসি মা। খুবই। আমি তোমাকে খুব মিস করব…।’
চারপাশ থেকে গুলির শব্দ আসছে মুহুর্মুহু। এর মধ্যেই এভাবে একটি ভিডিও মঙ্গলবার ভারতের দান্তেওয়াড়ার জঙ্গলে শুয়ে রেকর্ড করেছিলেন দেশটির সংবাদমাধ্যম দূরদর্শনের এক কর্মচারী। নাম মরমুকুট শর্মা। দান্তেওয়াড়ার নির্বাচনের জন্য ওই অঞ্চলে গিয়েছিলেন পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে।
মরমুকুট শর্মা শেষ পর্যন্ত বেঁচে গেলেও প্রাণ হারিয়েছেন তার সিনিয়র ক্যামেরাম্যান অচ্যুত নন্দ সাহু। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে সেনা ও মাওবাদীদের মধ্যে গোলাগুলি চলে। আর এতেই প্রাণ যায় সাহুর। এনডিটিভি।

Related Post

Spread the love
  • 6.2K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6.2K
    Shares