ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) থেকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে এক যুবককে পুলিশে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। আটক হওয়া যুবকের নাম মহসীন রাব্বী। গতকাল শুক্রবার রাত ৯টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টিএসসির ডাচ-বাংলা এটিএম বুথের সামনে একটি প্রাইভেটকারের ভেতরে মহসীন রাব্বীকে এক তরুণীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। পরে শিক্ষার্থীরা বিষয়টি জানতে পেরে রাব্বীকে গাড়ি থেকে বের করার চেষ্টা করেন। সে সময় পুলিশ এসে উপস্থিত হলে তাকে গাড়ি থেকে বের করতে বাঁধা দেয়। পরে ক্ষিপ্ত হয়ে শিক্ষার্থীরা গাড়ির কাঁচ ভেঙে তাকে বের করার চেষ্টা করেন। এ সময় গাড়ির ভেতরে থাকা তরুণী পালিয়ে যান। পরে পুলিশ ওই যুবককে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায়।

শাহবাগ থানা পুলিশ জানায়, ফেসবুকে এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে ওই যুবকের প্রেমের সম্পর্ক হয়। তার সঙ্গে ক্যাম্পাসে শুক্রবার দেখা করতে গিয়েছিলেন ওই যুবক। এ সময় শিক্ষার্থীরা ওই যুবকের গাড়ি ভাঙচুর করে এবং তাকে মারধর করে পুলিশে দেয়। তবে মহসীন রাব্বী জানান, তার সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল, এখন নেই। শিক্ষার্থীরা তাকে বিনা অপরাধে মেরেছে। এই বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘থানা থেকে আমাদের জানানো হয়েছে আটককৃত ব্যক্তি বহিরাগত। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র নন। তাই এ বিষয়ে থানা কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবে। ওই ব্যক্তি মেয়ে সংক্রান্ত কোনো বিষয়ে আটক বলে জানতে পেরেছি। এ বিষয়ে শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান বলেন, ‘আটককৃতকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে কেউ থানায় অভিযোগ নিয়ে আসেনি। যদি কেউ অভিযোগ নিয়ে আসে আমরা গ্রহণ করব।’

Related Post

Spread the love
  • 197
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    197
    Shares