খোলা রাস্তায় দিন-দুপুরে কেজি দরে বিক্রি হয় টাকা। #এক কেজি টাকার দাম শুনলে আপনার মাথা ঘুরে যাবে

বাজারে সাধারণত টাকার বিনিময়ে পণ্য কেনা হয়। আর সেই সব বাজার হয়ে থাকে শাক-সবজির, বইয়ের, পোশাকের, খাবারসহ আরো অনেক পণ্যের। কিন্তু রাস্তার পাশে এমন একটি বাজার আছে যেখানে বস্তা বস্তা টাকা মেলে। আর সেই টাকাও লাইন দিয়ে কিনে নেয় মানুষ। বিচিত্র এই বাজার রয়েছে আফ্রিকার ছোট্ট দেশ সোমালিল্যান্ডে। এখানে কেজি দরে বিক্রি হয় টাকা। তবে সেই টাকা জাল নয়। একেবারে আসল টাকা। যা দিয়ে দৈনন্দিন চাহিদার ভিত্তিতে পণ্য কিনে থাকে মানুষ। খোলা রাস্তায় দিন-দুপুরে ক্রেতারা বিনিময় করে নিয়ে যায় রাশি রাশি নোট। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যসামগ্রী কিনতে গেলে টাকার বস্তা নিয়ে বের হতে হয় এখানে। এরকম বাজার গড়ে ওঠার পেছনে সোমালিল্যান্ডের আর্থিক কাঠামোই দায়ী। এখানকার মুদ্রাকে বলা হয় ‘শিলিং’। যার দাম ব্যাপকভাবে কমে যাওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। সোমালিল্যান্ডে টাকার দাম এতই কম যে, এ টাকার বাজারে নিরাপত্তা নেই। এমনকি ছিনতাইকারী, চোর, ডাকাতও এই ‘শিলিং’ চুরি করতে আগ্রহ দেখায়নি। তাই রাস্তার পাশে পথের উপর ‘শিলিং’ ফেলে রেখে বিক্রি হলেও কোনও অসুবিধা হয়নি। জানা যায়, ২০০০ সালে এক ডলার ছিল ১০ হাজার শিলিংয়ের কাছাকাছি। ২০১৭ সালে প্রথম দিকে ৯ হাজার শিলিংয়ের সমান ছিল এক ডলার। শিলিংয়ের এমন মূল্যহীনতার কারণেই সোমালিল্যান্ডের টাকার গুরুত্ব ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে। তবে বর্তমানে এক মার্কিন ডলারের দাম ৫৮১ শিলিংয়ের কাছাকাছি। খবর: আনন্দবাজার

(Visited 78 times, 1 visits today)

Related Post

You may also like...