শীতের সময়েই অসুস্থ হয় বেশির ভাগ মানুষ। ঋতু পরিবর্তন মানেই সর্দি-কাশি-জ্বর। এর জন্য ঔষুধ থাকলেও, এখানে দেওয়া হল ৫টি আয়ুর্বেদিক বস্তুর নাম যা ভিতর থেকে শরীরের প্রতিরোধ শক্তি বাড়ায়।আমলকি : এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। আমলকি এমনি খেতেই বেশ ভালো লাগে। অনেকে জুস করেও খায়। তবে, শীতকালে জুস না খাওয়াই ভালো।,ঘি :শুধু গরম ভাতেই নয়, শীতের নানা খাবার তৈরি করতেও ঘি ব্যবহার করা হয়। ঘি খেলে ‘ইনস্ট্যান্ট’ হিট ও এনার্জি পাওয়া যায়।,গুড় : আয়রন, জিঙ্ক ও সেলেনিয়মের মতো নানা মিনারেলের পাশাপাশি এতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এতে শরীর গরম থাকে। কাশি হওয়া থেকে বাঁচায়।,তিল : আয়ুর্বেদ মতে, শীতকালে তিল খুবই গুরুত্বপূর্ণ এক বস্ত যা শরীরকে ভিতর থেকে গরম রাখে। প্রতিরোধ শক্তিও বৃদ্ধি করে।,হলুদ : এতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টি-ভাইরাল ও অ্যান্টি-ফাঙ্গাল গুণ। এক গ্লাস গরম দুধের সঙ্গে এক চা-চামচ হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে রোজ তা খেলে, ফ্লু-সর্দি-জ্বরের গাত থেকে রেহাই পাওয়া যায়।,ভিটামিন সি : শীতকালীন যে কোনো ফল ও সবজি যাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি।,পানি : শীতকালে পানি খাওয়া কমে যায়। সচেতনভাবে পানি খান। এর ফলে শরীর হাইড্রেট থাকে। সুযোগ থাকলে পানিতে এক টুকরো লেবু মিশিয়ে নিন।

Related Post