প্রথমে মিষ্টি কথা, তারপর খুনের হুমকি দিয়ে ছিনতাই, গোল চিহ্নিত ছিনতাইকারী ও সাদা শার্ট পরিহিত সাইদুর। ছবি ফেসবুক থেকে নেওয়া। নগরীর ব্যস্ততম এলাকা চকবাজারে দিনের বেলা ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন সাইদুর রহমান (১৬) নামে এক কলেজ ছাত্র। প্রথমে মিষ্টি কথা বলে ছিনতাইকারীরা তার সঙ্গে ভাব জমায়। তারপর খুনের হুমকি দিয়ে কেড়ে নিয়ে যায় মোবাইল। এভাবে প্রতিদিন চকবাজারে ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে বলে ‍অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ আছে পুলিশের উদাসীনতারও।

ছিনতাইয়ের শিকার ছাত্র সাইদুর নিজে ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশকে দিলেও ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারে পুলিশের কোন ভূমিকা নেই। এমনকি সোমবার (০৬ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে ছিনতাইয়ের ঘটনায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) হলেও সারাদিনে বিষয়টি জানতেই পারেননি চকবাজার থানার ওসি। অথচ সোমবার সকালে চকবাজারের একই স্পটে আরো এক ছাত্রী ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন। ছিনতাইয়ের শিকার সাইদুর রহমান সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজের ইন্টারমিডিয়েট প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। তিনি নগরীর পাহাড়তলী এলাকার বাসিন্দা কাতার প্রবাসী মঞ্জুরুল আলমের ছেলে। সাইদুর বাংলানিউজকে জানান, কলেজ থেকে বের হয়ে চকবাজার গুলজার টাওয়ারের সামনে যাবার পর মাস্ক পড়া এক যুবকসহ তিনজন তাকে ঘিরে ধরে। একজন ভাইয়া ডেকে তাকে কোন কলেজে পড়ে সেটা জানতে চান। একজন নিজেকে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পরিচয় দিয়ে তাকে জানান, কয়েকদিন আগে মহসিন কলেজের একজন ছোট ভাই খুন হয়েছে। এজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, প্রত্যেক ছাত্রের মোবাইলের ডায়াল লিস্ট চেক করব।‘এইকথা বলেই একজন আমার হাতে থাকা মোবাইল কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করে। আমি মোবাইল সরিয়ে নিলে তারা আমাকে খুন করবে বলে হুমকি দেয়। এরপর জোর করে মোবাইল কেড়ে নিয়ে আমাকে গুলজার টাওয়ারের পেছনে আরও দুজন যুবকের কাছে নিয়ে যান। তারা আমাকে বলেন, ডায়াল লিস্ট চেক করা শেষ হলে তারপর মোবাইল ফেরত দেবে। এরপর তারা চলে যায়। আমি অনেক খুঁজেও তাদের আর পাইনি। ’

সাইদুরের অভিযোগ, ঘটনাস্থলে মোটর সাইকেল নিয়ে দুজন পুলিশ সদস্য ছিলেন। তারা ঘটনা দেখেও কোন বাধা দেননি। এমনকি মোবাইল ‍হারানোর পর সাইদুর পুলিশের কাছে সাহায্য চাইলে গেলে তারা কথা না শোনার ভান করে মোবাইলে ফেসবুক ব্যবহার করছিলেন আর হাসাহাসি করছিলেন।পরে সাইদুর চকবাজার থানায় গিয়ে জিডি করেন। এর আগে সাইদুর নিজেই একটি বেকারির সিসি ক্যামেরা থেকে ফুটেজ সংগ্রহ করেন এবং থানায় জমা দেন। জানতে চাইলে চকবাজার থানার ওসি নূরুল হুদা বাংলানিউজকে বলেন, দুপুরেও কি একটা ছিনতাই হয়েছে ? কেউ তো আমাকে ‍জানায়নি। সকালে এক ছাত্রীর মোবাইল ছিনতাই হয়েছিল। সেটা আমরা উদ্ধার করে একজনকে আটক করেছি। সাইদুরের বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান ওসি।

Related Post

Spread the love
  • 11.6K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    11.6K
    Shares