কর্মীদের একটা মসজিদ উপহার দিলেন দক্ষিণ ভারতের কায়ামকুলামে জন্ম নেওয়া সাজি চেরিয়ান। তার অধীনে কাজ করা মুসলিম কর্মীদের মসজিদ উপহার দিলেন নিজে একজন খ্রিস্টান হয়েও।

৪৯ বছর বয়সী সাজি চেরিয়ানের প্রতিষ্ঠানে কাজ করে কয়েকশ মুসলিম শ্রমিক। ওই মসজিদটির নাম রাখা হয়েছে মারিয়াম উম্মে ঈসা। চেরিয়ান লক্ষ্য করেন ট্যাক্সি চেপে কাছাকাছি মসজিদে যেতে হয় কর্মীদের। শুক্রবারে নামাজের জন্য তাদের খরচ হয় ২০ সৌদি মুদ্রা। তা দেখেই মসজিদ তৈরির কথা মাথায় আসে তার। তাই কর্মীরা যেখানে থাকে, তার পাশেই তৈরি করা হয়েছে মসজিদ। ২০০৩ সালে চেরিয়ান ভারত থেকে আরব আমিরাতে এসেছিলেন আড়াইশ দিরহাম সম্বল করে। আর আজ তিনি প্রায় আড়াই কোটি টাকা দিয়ে তৈরি ওই মসজিদ উপহার দিলেন কর্মীদের। আমিরাতের একটি শ্রমিক আবাসের মালিক তিনি। যেখানে ফুজাইরাহ শহরের প্রায় ৫৩ টি কোম্পানির শ্রমিকরা বসবাস করে। আল হায়াল শিল্প এলাকায় ইস্ট ভিলা রিয়েল এস্টেট কমপ্লেক্সের পাশেই তৈরি হওয়া এই মসজিদে একসাথে অন্তত ২৫০ জন মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন। আর মসজিদের ঘেরা বাগানে নামাজ পড়তে পারবে আরো ৭০০ জন। বছর খানেক আগে মসজিদ তৈরির কাজ শুরু হয়। চলতি মাসে মসজিদ তৈরির কাজ শেষ হয়েছে।

চেরিবান বলেন, ‘আমি একজন খ্রিস্টান হয়েও মসজিদ তৈরি করেছি জেনে খুশি প্রশাসন। মসজিদে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ ও পানির ব্যবস্থাও করা হচ্ছে।’ খ্রিস্টান পরিবারে বড় হয়েছেন চেরিয়ান। এর আগে একটি চার্চও তৈরি করেছেন তিনি। কিন্তু তিনি কখনো একজন মানুষকে ধর্ম, জাত দিয়ে বিচার করতে চান না।-হিন্দুস্তান টাইমস, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস ও Kolkata24x7

Related Post