এক ভদ্রলোক ডিম বিক্রেতাকে জিজ্ঞেস করলো’ ডিম কত করে বিক্রি করছেন__?

বৃদ্ধ বিক্রেতা বললো’ স্যার পাঁচ টাকা করে প্রতিটি। স্যার বললো, আমি ৬টি ২৫ টাকা দেব,
না হয় চলে যাবো! বৃদ্ধ বিক্রেতা উত্তর দিলো, আসেন স্যার নিয়ে যান আপনার দামে।
কারণ সারাদিন একটিও বিক্রি করতে পারিনি। আপনার মাধ্যমেই আজকের বিক্রি শুরু।।
(ঐ টাকা দিয়েই হয়তো রাতের খাওয়ার জন্য কিছু কিনে নিয়ে যেতে হবে।)😥😢

স্যারটি ডিম কিনে জিতে গেছে ভেবে চলে গেল। তারপর স্যারটি তার দামী গাড়ীতে চড়ে তার বন্ধুর সাথে অভিজাত রেস্তোরাতে গেলো। সেখানে, সে আর তার বন্ধুরা তাদের পছন্দসই অনেক কিছু অর্ডার করলো। কিন্তু তারা যা অর্ডার দিলো তার স্বল্প খেলো আর বেশিরভাগ রেখে দিলো। তারপর সে বিল দিতে গেল। বিল আসলো ১৪০০টাকা। সে দিলো ১৫০০টাকা এবং রেস্তোরা মালিককে বললো বাকিটা রেখে দিতে। এ ব্যাপারটা রেস্তোরা মালিকের কাছে খুবই স্বাভাবিক হতে পারে কিন্তু দরিদ্র ডিম বিক্রেতার কাছে খুবই বেদনাময়।

ইস্যুটা হচ্ছে, আমরা যখন হত দরিদ্র মানুষদের কাছ থেকে কিছু কিনি,
কেন আমরা দেখাই আমাদের ক্ষমতা কত? এবং তাদের কাছে কেন এতো উদার হই যাদের ঐ বদান্যতা মোটেও প্রয়োজন নেই? বিষয়টি নিয়ে আমরা যদি একটু চিন্তা করি তাহলে দেখতে পাই যারা অভাবে থেকেও মানুষের কাছে হাত পেতে কিছু না নিয়ে কর্ম করে পেটে কিছু খাবার দিতে চায় আমরা কেন তাদের পারিনা একটু বেশী মূল্য দিতে ? # ভিবিন্য সময়ে রিক্সাওয়ালা ভাইদের সাথেও এমনটি দেখা যায়…… সত্যিই এগুলি অনেক কষ্টের… 😢 ভদ্রতার চাদরে আসলে আমরা আমাদের মূল্যবোধকে হারিয়ে ফেলেছি … 😰

যখনি কোন অসহায়, বৃদ্ধ, গরীব লোকের কাছ থেকে কিছু ক্রয় করবেন তখন তাকে মূল্যের চেয়ে একটু বেশী দিলে আপনার মোনেহয় খুব একটা বেশি ক্ষতি হবে না ইনশাআল্লাহ. তাই আসুননা আমরা একটু নিজেদের বদলাতে চেষ্টা করি …
অসহায় মানুষকে আপন ভাবতে শিখি…!

Related Post

Spread the love
  • 666
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    666
    Shares