ভারতের দিঘা মোহনার মৎস্য নিলাম কেন্দ্রে ওই মাছটি নিয়ে শুরু হয় হইচই। এক মাস আগে ধরা মাছটি মন্দারমণির কালিন্দী এলাকার মৎস্যবীবী জাকির ভুটভুটিতে করে মাছটি বাজারে নিয়ে আসেন।ভোলায় জেলের জালে ধরা পড়লো বিশাল ভেটকি মাছ। আর সেই মাছ বাজারে উঠিয়েছিলেন জেলে। সেই ভেটকি মাছটি বাজার বিক্রি হল ৯ লাখ টাকা দামে। প্রায় পাঁচ ফুট দৈর্ঘ্যের ওই মাছটির ওজন ৩৭ কেজি। নিলামের জন্য বাজারে মাছটি নিয়ে আসার পর থেকে দরদাম শুরু হয়ে যায় নবকুমার পয়রার আড়তে। শেষ পর্যন্ত ২৪ হাজার ৬০০ টাকা কেজি (১৯ হাজার রূপি) দরে নয় লাখ ছয় হাজার টাকায় (সাত খাল রূপি) মাছটি বিক্রি হয়। কলকাতার এসএফটি নামের এক সংস্থা মাছটি কেনে।

জাকির শেখ গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, এ ধরনের মাছ মূলত গভীর সমুদ্রে থাকে। কিন্তু প্রজননের জন্য উপকূলে এসে ধরা পড়ে যায় মাছটি। এ ধরনের মাছের দাম বেশি হয় এর পটকার জন্য। কারণ এই মাছের পটকায় জীবনদায়ী মূল্যবান ক্যাপসিউলের খোল তৈরি হয়।
ভোলা ভেটকির যকৃৎ থেকে একরকম তেল হয়। চিকিৎসা বিজ্ঞানে এর বেশ কদর। আর এই মাছ কেনার জন্যই বেশ আগ্রহী হয়ে থাকেন বিজ্ঞানীরা।

Related Post