বাবা নিখোঁজ। এ কারণে বাবার খোঁজে পরিচিত একজনের পরামর্শে এক তান্ত্রিকের কাছে গিয়েছিল যুবতী। এ সময় ওই তান্ত্রিক গোপন শক্তির সাহায্যে যুবতীর বাবাকে ফিরিয়ে আনার আশ্বাস দেয়। তবে, ওই তান্ত্রিক শর্ত হিসেবে কিছু নির্দেশ মানতে বলে যুবতীকে। এরপর তান্ত্রিক যুবতীকে যৌন সম্পর্কের জন্য চাপ দিতে শুরু করে।

পরে দুই স্ত্রীর সাহায্যে ২৩ বছর বয়সী যুবতীকে চারদিন ধরে ধর্ষণ করে ওই ভণ্ড তান্ত্রিক। ভারতের গুজরাটের সুরাটের আম্রলির এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে। জানা গেছে, ধর্ষণ ও ভয় দেখানোর অভিযোগে ভূপাত ওরফে মামা চৌহান নামের ওই তান্ত্রিক ও তার দুই স্ত্রী মনা ও রমাকে ধর্ষণে সহায়তা করার অভিযোগে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নির্যাতিতা যুবতীকে এভাবেই চারদিন ধরে যৌন নির্যাতন চালায় ওই তান্ত্রিক। এখানেই শেষ নয়, তার দুই স্ত্রী যুবতীকে এ ঘটনা কথা কাউকে জানালে প্রাণে মারার হুমকি পর্যন্ত দেয়। কিন্তু, ওই যুবতী প্রাণনাশের হুমকি উপেক্ষা করে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে। জানা যায়, নির্যাতিতা আপাতত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
বিডি২৪লাইভ

Related Post