প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ জিপিএ-৫ আর্জনের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলা প্রশাসন পরিচালিত বাংলাদেশ তুরস্ক ফ্রেন্ডশীপ স্কুল। এবার নিয়ে পরপর তিনবার শতভাগ জিপিএ-৫ অর্জনের সাফল্য অর্জন করেছে প্রতিষ্ঠানটি। প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা-২০১৮ তে প্রতিষ্ঠানটির ৪০ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। ৪০ জন শিক্ষার্থীই জিপিএ-৫ অর্জন করেছে। ফলাফলে বরিশাল বিভাগে পটুয়াখালী জেলা ও গলাচিপা উপজেলায় প্রথম স্থান অধিকার করে শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। ফলাফল ঘোষণার পরে শিক্ষার্থী অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষিকারা আনন্দ-উল্লাসে মেতে ওঠে।

উপাধ্যক্ষ মো. সাইফুল ইসলাম জানান, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা, নিয়মিত পাঠদান সর্বোপরি শিক্ষার্থীদের নিয়মিত অধ্যাবসায় এবং অবিভাকদের নিয়মিত পরিচর্যার ফলে এ সাফল্য সম্ভব হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পত্নী তাওছিনা মাকসুদ বলেন, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের আন্তরিক টিম ওয়ার্ক, সুন্দর পাঠদান, সাপ্তাহিক মূল্যায়ন পরীক্ষা, শৃঙ্খলাই স্কুলের ভালো ফলাফলের মূল ভিত্তি।

বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, শৃঙ্খলা, পরিচালনা পর্ষদসহ শিক্ষক ও অবিভাবকদের দায়িত্বশীল ভূমিকাসহ শিক্ষার্থীদের নিয়মিত অধ্যাবসায়ে এ সাফল্য অর্জনে ভূমিকা পালন করছে। উল্লেখ্য, তৎকালীন গলাচিপা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও বর্তমানে যুগ্ম সচিব, শিক্ষানুরাগী মানুষ আবুল কাসেম মো. মহিউদ্দিন ২০০৮ সালে বাংলাদেশ তুরস্ক ফ্রেন্ডশীপ স্কুলটি প্রতিষ্ঠা করেন।

Related Post