হাসপাতালের আইসিউতে ভর্তি ছিল সে মৃগীরোগে আক্রান্ত হয়ে। সর্বক্ষণ চিকিৎসকের তৎপরতা রয়েছে, বাইরে রয়েছে উদ্বিগ্ন অভিভাবক। তবুও শেষ রক্ষা হলো না। চূড়ান্ত অভাব্যতার শিকার হলো এক চোদ্দ বছরের কিশোরী। কেননা সর্ষের মধ্যেই লুকিয়ে ভূত।
ঘটনা মুম্বাইয়ের ছত্রপতি শিবাজি হাসপাতালের। সেখানেই গত শুক্রবার রাত একটা নাগাদ সবার অনুপস্থিতির সুযোগ নিয়ে আইসিইউতে ভর্তি এক কিশোরীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা করল দীনেশ কালী নামের এক মধ্যবয়স্ক ব্যক্তি। দীনেশ ওই হাসপাতালে পরিচ্ছন্নকর্মী হিসেবে নিযুক্ত ছিল। এক সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, দীনেশ এই কিশোরীর হাত বেঁধে শরীরের নানা জায়গায় হাত দিচ্ছিল। তাকে দেখতে পেয়ে পাশের বেডে ভর্তি এক রোগী অ্যালার্ম বাজায়। দীনেশ মারমুখী হয়ে ওঠে। তাকে ভয় দেখাতে থাকে। ততক্ষণে উঠে গিয়েছেন এই রোগীও। তার চিৎকারে নার্স, নিরাপত্তারক্ষীরা ছুটে আসে। ধরা পড়ে যায় দীনেশ।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ ধারায় তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

Related Post

Spread the love
  • 119
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    119
    Shares