রসুন মসলা হিসেবে সবাই রান্নাঘরে ব্যবহার করেন। বাঙালিরা রসুন ছাড়া মাছ-মাংস রান্নার কথা ভাবতেই পারেন না। এ ছাড়া বহুকাল আগে থেকে রসুন ওষুধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। রসুনে বিভিন্ন অসুখ নিরাময়ের ঐশ্বরিক ক্ষমতা রয়েছে। প্রাচীন চীন ও জাপানে রসুনকে উচ্চরক্তচাপ কমানোর ঘরোয়া উপাদান হিসেবে ব্যবহার করা হতো। ভারতে হৃদরোগ ও গাঁটে ব্যথা প্রতিরোধে দীর্ঘকাল ধরেই রসুন ব্যবহার হয়ে আসছে, আবার বিভিন্ন দেশে রোগ নিরাময়কারী উপাদান হিসেবে মধু ব্যবহৃত হয়ে আসছে। বিশ শতকের মাঝামাঝি এসে একে অ্যান্টিবায়োটিকের সঙ্গে তুলনা করা হয়। তবে রসুন ও মধু যখন একসঙ্গে মেশানো হয়, তখন এর গুণ বেড়ে যায় আরও বেশি।

রসুন ও মধুর মিশ্রণ বিভিন্ন ধরনের সংক্রমণ, ঠাণ্ডা, জ্বর, কফ ইত্যাদি সারাতে বেশ ভালো কাজ করে। এটি রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। শুধু এক সপ্তাহ রসুন ও মধুর মিশ্রণ খেলে বিভিন্ন রোগব্যাধি থেকে শরীরকে অনেকটাই রক্ষা করা যায়। সূত্র বোল্ড স্কাই।আসুন তা হলে জেনে নেয়া যাক মধু ও রসুনের ওই মিশ্রণটি তৈরির প্রস্তুত প্রণালি- উপাদান : একটি মাঝারি আকৃতির বয়াম, মধু, তিন থেকে চারটি রসুন। প্রণালি : প্রথমে বয়ামের মধ্যে রসুনের (খোসা ছাড়ানো) কোয়াগুলো নিন। এর পর এর মধ্যে মধু ঢালুন। বয়ামের মুখ বন্ধ করে মিশ্রণটি ফ্রিজের মধ্যে সংরক্ষণ করুন। প্রতিদিন খালি পেটে মিশ্রণটি আধা চা চামচ করে খান। এর পর দেখুন রোগমুক্তির জাদু।

Related Post

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •