যৌতুক বিরোধী আইনের দৃষ্টান্ত হিসেবে বিয়ের ৪ বছর পর শাশুড়িকে যৌতুকের টাকা ফেরত দিলেন জামাতা। একই সঙ্গে স্ত্রীর মোহরানা পরিশোধের জন্য জমি লিখে দিয়েছেন।শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) রাতে নীলফামারীর জলঢাকা পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ড চেরেঙ্গা মাঝাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে জানা গেছে, ২০১৪ সালে ওই গ্রামের মৃত সুলতান মামুদের মেয়ে রোজিনার সঙ্গে পাশ্ববর্তী সবুজপাড়া এলাকার আতিয়ার রহমানের ছেলে এরশাদ আলীর বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুক হিসেবে নগদ ৯০ হাজার টাকা ও একটি গরু দেয়া হয়। এরপর কেটে গেছে চার বছর।

অভাবের সংসার হলেও সুখে কাটছে তাদের দিন। কোলজুড়ে এসেছে একটি কন্যা সন্তান। এরই মধ্যে এরশাদ যৌতুকের ৯০ হাজার টাকা নিয়ে বিবেকের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ হয়। নিজের পরিশ্রমের সঞ্চয়কৃত টাকা ও একটি গাভীসহ ফেরত দেন শাশুড়ি রাবেয়া বেওয়ার কাছে।

এ বিষয়ে শাশুড়ি রাবেয়া জানান, এমন জামাই পেয়ে আমি নিজে গর্ভবোধ করছি। ঘটনাটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে এরশাদ আলীতে একনজর দেখার জন্য ছুটে আসে উৎসুক জনতা।

সাবেক ইউপি সদস্য হাফিজুর রহমান ও মসজিদের ঈমাম আকবর আলী বলেন, এরশাদ যা করলো তা দেখে আমাদের শিক্ষা নেয়া উচিত।

Related Post