নড়াইল-২ আসনের নবনির্বাচিত এমপি ক্রিকেট তারকা মাশরাফি বিন মর্তুজার হাতে গড়া নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সার্বিক নিরাপত্তায় নড়াইল ও লোহাগড়া শহরে প্রাথমিক অবস্থায় ৫২টি সিসি ক্যামেরা বসানোর কাজ শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন বলেন, নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এসব সিসিটিভি নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে এসপি অফিস থেকে।ফলে নড়াইলে মোটরসাইকেল চুরি, ইভটিজিং, রাজনৈতিক অস্থিরতাসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড কমবে এবং জেলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থকবে। আগামীতে জেলার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থান সিসিটিভির আওতায় আনা হবে বলেও জানান পুলিশ সুপার। জানা গেছে, ১৬ ডিসেম্বর নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন এবং সিডনিশান ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন সংক্রান্ত এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ঢাকার গুলশানে দাহুয়া-সিডনিশান সেন্টারে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন নড়াইল এক্সপ্রেসের চেয়ারম্যান মাশরাফি বিন মর্তুজা ও সিডনিশান ইন্টারন্যাশনালের প্রধান নির্বাহী সাগর টিটো। এ চুক্তি স্বাক্ষরের পর নড়াইল শহরের ১৫টি পয়েন্টে ৩৭টি ক্যামেরা এবং লোহাগড়া পৌর এলাকার ৫টি পয়েন্টে ১৫টি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়।

এ কাজের ডিজাইনার ও সমন্বয়কারী এম সাব্বির হোসেন বলেন, সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপনে খরচ ধরা হয়েছে প্রায় ২৫ লাখ টাকা। প্রথম দুই বছর সিডনিশান ইন্টারন্যাশনাল এবং পরবর্তীতে নড়াইল জেলা পুলিশ এবং নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন এটি পরিচালনা করবে।নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম অনিক বলেন, সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপনে স্পন্সর করছে সিডনিশান ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি ক্যামেরা ডিস্ট্রিবিউটর প্রতিষ্ঠান। নড়াইলের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য প্রাথমিক অবস্থায় ৫২টি সিসিটিভি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। এরপর জেলার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ স্থান সিসিটিভির আওতায় আসবে।স্পোর্স জোন

Related Post