নারী হয়েও রাইড শেয়ারিং অ্যাপ উবার চালানোর কারণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ আলোচিত শাহনাজ আক্তার। কিন্তু অত্যন্ত দু:খের বিষয়, সময়ের এই সাহসী নারীর সেই স্কুটিটি আজ মঙ্গলবার বিকালে চুরি হয়েছে।

স্কুটিটি হারানোর বিষয়ে শাহনাজ আক্তার টোয়েন্টিফোর লাইভ নিউজপেপারকে বলেন, ‘ঋণ করে স্কুটিটি কিনেছিলাম। এই স্কুটিটি দিয়েই চলতো আমার সংসার। আজ সেই সম্বলটাও চুরি হয়ে গেল। জানি না কীভাবে এই ধাক্কা সামাল দেব।’
জানা গেছে, শাহনাজ আক্তার নীল রংয়ের একটি মাহিন্দ্র স্কুটি চালাতেন। যার নম্বর ঢাকা মেট্রো-হ ৫৫-২৯৪৭। স্কুটিটি মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে জাতীয় সংসদ ভবনের বিপরীত দিকে রাজধানী স্কুলের সামনে থেকে চুরি যায়। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত তিনি থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের করেননি। এ ব্যাপারে সাংবাদিক রফিকুল রঞ্জু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন, ‘শাহনাজের কথা নিশ্চয়ই আপনারা এরই মধ্যে অনেকেই জেনে থাকবেন। সাহসী এক নারী বাইকার। রাইড শেয়ারিংয়ে তিনি নারী-পুরুষ সবাইকেই পাশে বসাতেন। হ্যা, বসাতেন বলতে হলো। কারণ, এখন তিনি আর বসাতে পারছেন না! আজ তার বাইকটি এক দুর্বৃত্ত দেখার কথা বলে ছিনিয়ে নিয়েছে। ধার করে স্কুটিটি কিনেছিলেন শাহনাজ। এখনও সেই ঋণের এক লাখ টাকা বাকি। আর পরিবার চালানোর একমাত্র মাধ্যমও ছিল তার স্কুটিটি। কিছুক্ষণ আগে সামনে বসে তিনি কাঁদছিলেন, আমি ছোট মানুষ কতটুকুই বা করতে পারি?’

সংগ্রামী নারী শাহনাজ আক্তার সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। রাজধানীর মিরপুরেই জন্ম তার। বাবা নেই, মা আর বোনেরা আছেন। স্বামী থাকলেও তিনি আলাদা থাকেন। তার সঙ্গে তার দুই মেয়েও থাকে। বড় মেয়ে নবম ও ছোট মেয়ে প্রথম শ্রেণিতে পড়ে।

Related Post