আমার স্বামী পরকীয়া করার জন্য রোজ রাতে মেয়েদের সঙ্গে ফোন কথা বলে, একদিন রাতে আমি….
আমার স্বামী রোজ পরনারীদের সাথে কথা ফোনে কথা বলে,আমি জানি। সে যখন অফিসে থাকে তখন তাকে কল করে কখনো পাওয়া যায়না, বিজি আসে ফোন। বাড়ির বাইরে পরনারীদের নিয়ে ঘুরতেও যায়, আমি জানি। তার সারাদিনের সবকিছু আমার জানা, আড়াল করা বিষয়গুলোও আমার জানা।তবুও কাজ শেষে সে যখন রাতে বাড়ি ফেরে তখন আমি হাসি মুখে সালাম দিয়ে তাকে অভ্যর্থনা জানাই। সেও স্বাভাবিক ভাবেই থাকে। তার প্রয়োজনীয় সব জিনিসপাতির দিকে আমি খেয়াল রাখি। তাকে জিজ্ঞাসা করি তার দিন কেমন ছিল।অথচ কখনো তার আড়াল করা বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করিনা। রাতে শুতে যাবার সময় তাকে রোজ জিজ্ঞাসা করি “ভালোবাসো আমাকে?” সে হাসি মুখে বলে দেয় “হ্যা, বাসি” এটুকুই পাওয়া আমার কিন্তু অসম্পূর্ণ লাগে কথাটা।

গভীর রাতে আমি তাহাজ্জুদের জন্যে উঠি। আমার স্বামীর জন্য মহান আল্লাহ’র কাছে দু’আ করি। অভ্যাস হয়ে গিয়েছে আমার। গভীর রাতে আমার আল্লাহ’র সাথে কথা না বললে আমার মন শান্ত হয় না। একদিন সে বাড়িতে আসলো চুপচাপ ভাবে। মুখে হাসি ছিল না। বেশি কথাও বলেনি। আমি খেয়াল করলাম সে বারবার আমার মুখের দিকে তাকাচ্ছে আর আমার চোখে চোখ পড়লে মাথা নিচু করে নিচ্ছে। প্রতিদিনকার মতো আজও শুতে যাবার সময় তাকে প্রশ্ন করলাম “ভালোবাসো আমাকে?” সে কেঁদে ফেললো। আমার হাত ধরে হাটু গেড়ে নিচে বসলো। কেঁদে কেঁদে আমায় বললো “আমিরা, খুব খারাপ। খুব খারাপ লোক।তোমার বিশ্বাসের যোগ্য না আমি। আমি অনেক মহিলাদের সাথে কথা বলি।সম্পর্ক রাখি। তোমাকে ঠকিয়েছি আমি, ঠকিয়েছি। ক্ষমা করে দেও ” আমার চোখ থেকে প্রাপ্তির পানি ঝরে গেলো।তাকে উঠিয়ে পাশে বসিয়ে বললাম “ভালবাসো আমাকে?” সে জড়িয়ে ধরে বললো “হ্যা, ভালবাসি। তোমাকেই ভালবাসি, আমিরা। খুব ভালবাসি”

জানিনা কি হয়েছে। জানতেও চাই না। আমার আল্লাহ’র কাছে যা চেয়েছিলাম সে আমাকে তা দিয়ে দিয়েছেন। আর কিছু জানার নেই আমার। শোকর আলহামদুলিল্লাহ।

Related Post